দেশবাংলা

ক্যাপসিক্যাম চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকের

ভোলার চরাঞ্চলগুলোতে মাটি ও আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় ক্রমেই বাড়ছে বিদেশী সবজি ক্যাপসিক্যামের আবাদ। অল্প খরচ ও কম পরিশ্রমে অধিক লাভজনক হওয়ায় এ চাষে আগ্রহী হচ্ছেন অনেক কৃষক।

তবে সরকারি সহযোগিতা পেলে বিদেশী এ সবজিতে বিপ্লব ঘটানো সম্ভব বলে মনে করছেন, চাষিরা। আর কৃষি বিভাগ বলছে, চাষিদের সঠিক পরামর্শ ও তদারকি করা হচ্ছে।

ভোলা সদরের মাঝের চরে ৬ থেকে ৭ বছর আগে কাচিয়া ইউনিয়নের মনির পাঠান নামে এক ব্যক্তি ১০ শতক জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে ক্যাপসিক্যাম চাষ শুরু করেন। আর এতে সফলতা পেয়েছেন তিনি। এর পরের বছরেই তিনি বড় পরিসরে ক্যাপসিক্যাম চাষ শুরু করেন। এরপর তাকে দেখে অন্য চাষিরাও আগ্রহী হয়ে ওঠেন।

ক্যাপসিক্যাম ক্ষেতে তেমন কোন পোকা-মাকড়ের আক্রমন না থাকা, অল্প খরচ ও কম পরিশ্রমে বেশি লাভজনক হওয়ায় স্বাবলম্বী হচ্ছেন কৃষকরা। এদিকে, চাষিদের সঠিক পরামর্শ দেয়া হচ্ছে বলে জানালেন, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বিনয় কৃষ্ণ দেবনাথ।

জেলা কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, গত বছর ভোলায় ১৫ হেক্টর জমিতে ক্যাপসিক্যামের আবাদ হয়েছিল। আর এবছর আবাদ হয়েছে ৩০ হেক্টর জমিতে। যা গত বছরের চেয়ে দ্বিগুন।

জুয়েল সাহা, ভোলা প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button