দেশবাংলা

আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে নোয়াখালী পৌরসভা

আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে নোয়াখালী পৌর শহর। গত ১৫ দিন ধরে পুরো শহরে ময়লা পড়ে থাকলেও, স্থানীয় এমপির নির্দেশে অপসারণে বাঁধা দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ পৌর কর্তৃপক্ষের। ফলে, শহরের যত্রযত্র ময়লা আবর্জনার স্তুপ জমে উৎকট গন্ধে অতিষ্ঠ নগরবাসী। এতে স্বাস্থ্য ঝুঁকিসহ মারাত্মক পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে নোয়াখালী পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় সড়কের পাশে, বাসাবাড়ি, হাসপাতাল, হাট বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অফিস আদালতের সামনে থেকে ময়লা আবর্জনা অপসারণ করা হচ্ছে না।

যেখানে সেখানে পড়ে থাকা ময়লা আবর্জনার পঁচা দুর্গন্ধে শহরের পরিবেশ অসহনীয় হয়ে উঠেছে। এতে একদিকে মশা মাছির উপদ্রব বাড়ছে, অন্যদিকে পুরো শহরই যেন আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে।

নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর নির্দেশে শহর থেকে নির্ধারিত স্থানে ময়লা অপসারণে বাঁধা ও হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ, পৌর কর্মকর্তা, কর্মচারী ও পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের। তবে দ্রুত ময়লা আবর্জনা অপসারণ করা না হলে, পৌরবাসী বড় ধরণের স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে পড়ার আশঙ্কা করছেন, নোয়াখালী পৌরসভার প্রধান মেডিকেল অফিসার প্রনয় কুমার দেবনাথ।

স্থানীয় এমপির কথা বলে বাঁধা প্রদান এবং পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের ওপর হামলা ভাংচুরের কারণে সব প্রস্তুতি থাকা সত্ত্বেও, পৌর এলাকার ময়লা আবর্জনা অপসারণ করা যাচ্ছে না বলে অভিযোগ, পৌর মেয়র সহিদ উল্লাহ খান সোহেল।

এদিকে, পৌর মেয়রের অভিযোগ অস্বীকার করে, পরিবেশ দূষনের কারণে স্থানীয়রা নিজ উদ্যোগেই ময়লা ফেলতে বাঁধা দিচ্ছে বলে জানান, সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী।

পৌর এলাকায় ময়লা আবর্জনা ও দুর্গন্ধমুক্ত পরিচ্ছন্ন পরিবেশ নিশ্চিত করতে সংসদ সদস্য ও পৌর মেয়রের সমন্বয়নের মাধ্যমে কার্যকর উদ্যোগ নেয়ার প্রত্যাশা পৌরবাসীর।

ইয়াকুব নবী ইমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close