দেশবাংলা

নিয়মনীতির তোয়াক্কা করছে না শেরপুরের ইটভাটাগুলো

নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে শেরপুরে চলছে অবৈধ ইটভাটার কার্যক্রম। কৃষি জমি নষ্ট করে,এমনকি ফসলী জমির উর্বর মাটি কেটে, তৈরি করা হচ্ছে ইট। মোবাইল কোর্টের অভিযান চালিয়ে জরিমানা করলেও, আবারো চলছে দূষণকারী এসব ভাটা। তবে জেলা প্রশাসক বলছেন, অনুমোদনহীন ভাটার বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

শেরপুর জেলায় প্রায় ১শ ইটভাটা থাকলেও পরিবেশ অধিদপ্তরের তথ্যমতে দেখানো হয়েছে ৪৬টি। এর মধ্যে মাত্র ১৯টির ছাড়পত্র আছে আর বাকীগুলোর নেই কোন অনুমোদন। আবার ছাড়পত্র পাওয়া বেশিরভাগ ভাটারই মেয়াদ শেষ হয়েছে, অনেক আগেই।

কৃষি জমির মাটি কেটে তৈরি করা হয় ইট। এতে নষ্ট হচ্ছে মাটির উর্বরতা শক্তি আর দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। এদিকে, ভাটার বিষাক্ত ধোঁয়ায়, আশপাশের মানুষদের শ্বাসকষ্টসহ বাড়ছে নানা রোগ,ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে ফসলের। অবৈধ ভাটার কথা স্বীকার করে সবধরনের কাগজপত্র জমা দেয়ার কথা বলছেন মালিকপক্ষ।

জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় দ্রুত সময়ের মধ্যে অবৈধ ভাটার বিরুদ্ধে অভিযান করার কথা জানান, পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। আর বায়ু ও পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখতে অনুমোদনহীন ভাটার বিরুদ্ধে অভিযান চলমান রয়েছে, দাবী জেলা প্রশাসকের।

ইতোমধ্যে উপজেলা পর্যায়ে তিনটি ইটভাটায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে ৫০হাজার টাকা করে জরিমানা করলেও, আগের মতোই চলছে এসব অবৈধ ইটভাটা।

শাকিল মুরাদ, শেরপুর প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close