বিশ্ববাংলা

অস্থায়ী ইমিগ্রান্টদের জন্য ভিসানীতি শিথিল করেছে যুক্তরাজ্য

যুক্তরাজ্যে করোনা বিপর্যয় মোকাবেলায় বিদেশী শিক্ষার্থীসহ অস্থায়ী ইমিগ্রান্টদের জন্য ভিসানীতি শিথিল করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণায়লয়।

যাদের ভিসার মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গেছে অথবা খুব শীগগিরই শেষ হয়ে যাবে, তাদের দুশ্চিন্তার কারণ নেই। মেয়াদ শেষ হলেও ভিসার মেয়াদ ৩১ মে পর্যন্ত স্বয়ংক্রীয়ভাবে বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়া ভিসার ক্যাটাগরি পরিবর্তনের জন্য, এখন আর নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। যুক্তরাজ্যে থেকেই আবেদন করে ভিসার ক্যাটাগরি পরিবর্তন করা যাবে ।

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের এই বিপর্যয়ে বিদেশী শিক্ষার্থীসহ অস্থায়ী ইমিগ্রান্টদের জন্য ভিসা নীতি শিথিল করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণায়লয়। যাদের ভিসার মেয়াদ ইদানিং শেষ হয়ে গেছে কিম্বা খুব শিঘ্রই মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে যাবে তাদের ভিসা ৩১ মে পর্যন্ত স্বয়ংক্রিয়ভাবে বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়া নিজ দেশে ফিরেনা গিয়ে যুক্তরাজ্যে থেকেই ভিসার ক্যাটাগরি পরিবর্তনেরও সুযোগ দেওয়া হয়েছে অন্তর্বর্তীকালীন সময়ের জন্য। তারপরও যথা সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্স শেষ করা এবং ভিসার মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে দুশ্চিন্তায় শিক্ষার্থীরা।

যুক্তরাজ্যে শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন ভিসা ক্যাটাগরীতে প্রায় লাখ খানেক বাংলাদেশী অস্থায়ীভাবে বসবাস করেন। কঠোর ইমিগ্রেশন নীতির বিধি নিষেধের বেড়াজালে থাকেন এসব ইমিগ্রেন্ট। কিন্তু এবার করোনা মহামারীর কারণে ইমিগ্রেন্টদের জন্য নিয়ম নীতি কিছুটা শিথিল করেছে হোম অফিস।

পূর্বে এক ভিসা ক্যাটাগরী থেকে অন্য ভিসা ক্যাটাগরীতে যেতে হলে নিজ দেশে ফিরে গিয়ে আবেদন করতে হতো।  বিশেষ  করে শিক্ষার্থীর স্পাউসবা ভিজিট ভিসায় আসা ইমিগ্রেন্টদের ক্ষেত্রে এ নিয়ম প্রযোজ্য ছিল। করোনাভাইরাসের ফলে লকডাউন হয়ে যাওয়ায় এখন যুক্তরাজ্যে থেকেই ভিসার ক্যাটগরী পরিবর্তন করা যাবে।

হোম অফিসের নতুন সুযোগ সুবিধার পরও বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে না পারায় শিক্ষাজীবন নিয়ে দুশ্চিন্তায় শিক্ষার্থীরা। ভিসার মেয়াদ বাড়ানো নিয়েও উদ্বেগ তাদের।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close