দেশবাংলাবাংলাদেশ

করোনায় বিপাকে মৃৎশিল্পীরা

প্লাস্টিক সিলভার, মেলাইমানের দাপটে অনেক আগেই হারাতে বসেছিলো গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য মৃৎশিল্প। তারপরও কষ্ট করে পৈতৃক এ পেশাকে ধরে রেখে এতদিন কাজ করে জীবনযাপন করছিলেন পাল সম্প্রদায়। এ শিল্পের চাহিদা বছরের অন্য সময় না থাকলেও, পহেলা বৈশাখে মাটির জিনিস ছাড়া চলেইনা। আর বৈশাখের চাহিদা মেটাতে দেশের বিভিন্নস্থানে ব্যস্ত থাকতো এ শিল্পের কারিগররা। সম্প্রতি করোনার প্রভাবে বিপাকে পড়েছেন মৃৎশিল্পের সাথে জড়িতরা।

মাদারীপুরের মৃৎশিল্পীরা প্রতিবছর বাংলা বছরের বৈশাখ আসার অপেক্ষায় একটু ভাল থাকার জন্য,বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে তৈরি করেন বিভিন্ন সামগ্রী ও খেলনা।করোনার প্রভাবে সব অনুষ্ঠান বন্ধ থাকায়,মাটির তৈরি জিনিসপত্র তৈরীতে নেই ব্যস্ততা।বেকার হয়ে পড়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন এ অঞ্চলের পাল সম্প্রদায়।

পিরোজপুর সদর থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে মূলগ্রামে অবস্থিত পালপাড়া।দুইশ বছরের পুরানো এ পালপাড়ায় বসবাসরত ১৫০টি পরিবার,মৃৎ শিল্পের সঙ্গে জড়িত।প্রতিবছর এসময় নারী-পুরুষরা মাটি দিয়ে তৈরী করেন,বিভিন্ন তৈজসপত্র।এবছরও আগে থেকে কিছু জিনিস তৈরী করলেও,করোনা সংক্রমনে বন্ধ রয়েছে সবধরনের বিক্রি।বৈশাখ উপলক্ষে জিনিস তৈরীতে যা পুঁজি ছিল তা শেষ হওয়ায়,সংকটে পড়েছেন এ পেশার সাথে জড়িতরা।

চেম্বার অব কমার্সের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসকের সাথে যোগাযোগ করে,তাদের সহায়তা করা হবে বলে জানান, জেলা চেম্বার অব কমার্সের সাধারণ সম্পাদক।এই মহামারির সময় সরকার তাদের দুমুঠো খাবারের ব্যবস্থা করবে এমন প্রত্যাশা মৃৎশিল্পী ও পাল সম্প্রদায়ের।

বাংলাটিভি/শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close