অপরাধবাংলাদেশ

কুয়েতমৈত্রীর চিকিৎসক বরখাস্ত ও মুগদা হাসপাতালের মাস্ক দুর্নীতির তদন্ত শেষ

কুয়েত-মৈত্রী হাসপাতালের ৬ চিকিৎসককে সাময়িক বরখাস্ত আর মুগদা হাসপাতালে সরবরাহকৃত নিম্মমানের এন-৯৫ মাস্ক দুর্নীতির তদন্তের বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন, কোভিড-১৯ নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের গঠিত মিডিয়া সেলের সদ্যবিদায়ী প্রধান হাবিবুর রহমান খান। তদন্ত প্রতিবেদনে অনৈতিক কাজের প্রমাণ পাওয়া গেলে, ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারিও দেন তিনি।

গত ৯ এপ্রিল কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোহাম্মদ সেহাব উদ্দিন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালককে চিঠিতে জানান, ৬ চিকিৎসকের কোভিড-১৯ কেন্দ্রে সেবা প্রদানে অনিচ্ছার কথা। এরপর ১১ই এপ্রিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আদেশে ঐ ৬ চিকিৎসককে বরখাস্ত করা হয়।

একই সময়ে রাজধানীর মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে এন-৯৫ মাস্কের বাক্সে সাধারণ মাস্ক সরবরাহ নিয়ে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশের পর বিষয়টি আলোচনায় উঠে আসে। ঘটনা দুটি, তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

এদিকে, কমিটির তদন্ত রিপোর্ট উচ্চপর্যায়ে হস্তান্তর করা হয়েছে জানানো হলেও, এখন তা প্রকাশ করা হয়নি। তবে অনৈতিক কাজের প্রমাণ পাওয়া গেলে, দোষীদের বিরুদ্ধে আইন আনুগ ব্যবস্থা বলেও জানান, হাবিবুর রহমান খান। এছাড়া দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে বলেও জানান তিনি।

বুলবুল আহমেদ, বাংলাটিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close