বিশ্ববাংলা

করোনা: সৌদিতে বাংলাদেশিদের মৃত্যুর হার বেশি

মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশিদের বৃহত্তম শ্রমবাজার সৌদি আরব। দেশটিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অন্যান্য দেশের অভিবাসীদের তুলনায় বাংলাদেশিদের মৃত্যুর হার অনেক বেশী। এছাড়াও করোনার প্রভাবে সৌদি আরবে বেশকিছু ক্ষেত্রে বেকারত্ব সৃষ্টি হলেও, কারিগরী দক্ষতা থাকা কর্মীদের বেকার হবার আশংকা কম।

করোনা বা যেকোনো দুর্যোগে কফিল বা মালিক থাকা প্রবাসীরাই, বেশী নিরাপত্তা পেয়ে থাকেন দেশটিতে। বাংলা টিভির সৌদি আরব প্রতিনিধি গোলাম কিবরিয়ার উপস্থাপনায় প্রবাসে বাংলার মুখ টকশোতে, এমন অভিমত দিয়েছেন অতিথিবৃন্দ।

মরুভূমির দেশ সৌদি আরব, মুসলিমদের তীর্থস্থান। হজ্জ উপলক্ষ্যে প্রতিবছর দেশটিতে যান বিপুল সংখ্যক মুসলমান। এছাড়াও খনিজ তেল রপ্তানী করে দেশটির অর্থনীতি ব্যাপক সমৃদ্ধ হয়েছে। দেশটিতে প্রায় ২১ লাখ বাংলাদেশি প্রবাসী জীবিকার তাগিদে পাড়ি জমিয়েছেন। মধ্যপ্রাচ্যের বৃহত্তম এ শ্রমবাজার থেকে বাংলাদেশে আসে রেমিট্যান্সের একটি বড় অংশ।

দেশটিতে অন্যান্য দেশের অভিবাসীদের তুলনায় বাংলাদেশিরাই করোনা ভাইরাসে বেশী মারা গেছেন। এ পর্যন্ত প্রায় ৫০০ বাংলাদেশি করোনা ভাইরাস এবং এর বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন। চিকিৎসকরা মনে করেন, অসচেতনতা, আইন অমান্য করার প্রবণতা এবং পেশাগত বাধ্যবাধকতার কারনেই, সৌদিতে বাংলাদেশিদের মৃত্যুর হার বেশী।

দীর্ঘদিন লকডাউনে থাকার পর, গত ২১ জুন সৌদি সরকার লকডাউন তুলে নিয়েছে। এতে, অর্থনীতির চাকা সচল হয়ে, দেশজুড়ে কর্মচাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বেশকিছু ক্ষেত্রে বেকারত্বের সৃষ্টি হয়েছে। তবে, কারিগরী দক্ষতা থাকা প্রবাসীদের কাজের ক্ষেত্র খুব একটা সংকুচিত হয়নি।

এদিকে, হজ্জকে কেন্দ্র করে সৌদি আরবে প্রতিবছর সারা বিশ্ব থেকে যে পরিমাণ মুসুল্লি আসেন, তাদের কাছে বেচাকেনা করে লাভবান হয় বাংলাদেশী ব্যাবসায়ীরা। কর্মচারীরাও তার সুফল ভোগ করেন। কিন্তু এবার করোনা মোকাবেলায় হজ্জকে সংক্ষিপ্ত করায়, ব্যাবসা ক্ষেত্রে ভাটা পড়াসহ, যেসব কর্মচারীদের কফিল বা মালিক নেই, অর্থাৎ যারা ফ্রি ভিসায় দেশটিতে গেছেন, তারা অনেকক্ষেত্রে সুবিধাবঞ্চিত হচ্ছেন। তাই, দূতাবাসের পক্ষ থেকে ফ্রি ভিসায় যাওয়াকে, নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

এছাড়া, সৌদি সরকার মাস্ক না পরলে ১০০০ রিয়াল জরিমানার ঘোষণা দেয়ার পর থেকে অনেকেই এখন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছেন। শীগগিরই করোনামুক্ত হয়ে সচল হয়ে উঠবে সৌদি আরব, প্রবাসীরা পূর্ণোদ্দ্যমে কাজ করে দেশে রেমিট্যান্স পাঠাবেন, এমন প্রত্যাশা সৌদি আরব প্রবাসীদের।

নাসির উদ্দিন ভূইয়া, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close