আন্তর্জাতিকএশিয়া

অস্ত্রোপচারের সময় সন্তানের মৃত্যু; চিকিৎসক বাবার আত্মহত্যা

নিজের ৭ বছর বয়সী কন্যা সন্তানকে গত ২৩ সেপ্টেম্বর অস্ত্রোপচার করেন অনুপ কৃষ্ণা। কিন্তু অস্ত্রোপচারে তার সন্তানের মৃত্যু হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অভিযোগ উঠে তিনি নিজেই তার সন্তানকে মেরে ফেলেছেন। এ অপমান সইতে না পেরে শেষ পর্যন্ত আত্মহত্যা করলেন কেরালার এক চিকিৎসক।

অনুপ কৃষ্ণা ভারতের কেরালার অর্থোপেডিকসের স্বনামধন্য একজন চিকিৎসক। বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) কাদাপ্পাকাড়াতে নিজ বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার হয়।

হিন্দুস্থান টাইমসের একটি প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, অনুপ কৃষ্ণা মৃত্যুর আগে বাথরুমের দেওয়ালে ‘স্যরি’ লিখে আত্মহত্যা করেন। এক সপ্তাহ আগেই মেয়ের মৃত্যু হয়েছিল। ঘটনার তদন্তকারী অফিসাররা সেই বিষয়টিকেও মাথায় রেখেছেন।

তবে ওই কারণেই তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন কি না- তা এখনই নিশ্চিত করতে পারছে না পুলিশ। অনলাইনে বা অফলাইনে তাকে কোনও হুমকি দেয়া হয়েছিল কি না- তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

গত ২৩ সেপ্টেম্বর তার সাত বছরের মেয়ে বাবার হাসপাতালেই ভর্তি হয়েছিল। হাঁটুর অস্ত্রোপচারের সময় কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট অর্থাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয় সে। বাবা নিজেই মেয়ের অস্ত্রোপচার করছিলেন। আরেকটি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও তাকে বাঁচানো যায়নি। মেয়ের মৃত্যুর জন্য পরিবার ও স্থানীয়রা হাসপাতালের বাইরে বিক্ষোভ দেখান।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button