দেশবাংলা

চুয়াডাঙ্গায় কলেজছাত্র জুবাইর হত্যা মামলায় দুই আসামীর যাবজ্জীবন

চুয়াডাঙ্গায় চাঞ্চল্যকর কলেজছাত্র জুবাইর মাহমুদ হত্যা মামলায় দুই আসামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। এবং এ মামলার অপর চার আসামীকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

রোববার দুপুরে চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক মোহা. বজলুর রহমান আসামীদের উপস্থিাতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলো, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আলোকদিয়া গ্রামের মৃত হারান মন্ডলের ছেলে মুন্তাজ আলী ও পিতম্বরপুর গ্রামের গোলাম নবী শেখের ছেলে হাসান।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, সাভার বিপিএটিসি কলেজের বাণিজ্য বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্র জুবাইর মাহমুদ চুয়াডাঙ্গার স্কুলছাত্রী পিয়ার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেমের টানে ২০০৯ সালের ১৩ এপ্রিল জুবাইর চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার আলোকদিয়া গ্রামে এলে তাকে অপহরণ করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়।

পরবর্তীতে একপর্যায়ে জুবাইরকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়। এ ঘটনায় জুবাইর মাহমুদের পিতা নুরুল হক চৌধুরী বাদী হয়ে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় সদর থানার তৎকালিন উপ পরিদর্শক (এসআই) সেকেন্দার আলী তদন্ত শেষে ৮ জন আসামীর নামে চার্জশিট দাখিল করেন।

এ মামলা চলাকালে নজির আহমদ ও হারুন অর রশিদ পলাশ নামে দুই আসামী মামলা মারা যায়। বাকী ছয় আসামীর মধ্যে মুন্তাজ আলী ও হাসানের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড এবং প্রত্যেককে ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আর বাকী চার আসামী আমীর হোসেন, ইমান আলী, নুসরাত জাহান পিয়া ও কবির হোসেনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত। এ মামলায় ১৮ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য পরীক্ষা করা হয়।

মামুন মোল্লা, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button