দেশবাংলা

খিলক্ষেতে যুবকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর খিলক্ষেতের মস্তুল এলাকা থেকে জনি মিয়া (২২) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) সকালে খিলক্ষেতের মস্তুুল ব্রিজ সংলগ্ন বালুর মাঠ থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত জনি মিয়া ওই এলাকার জাইদুল ইসলামের ছেলে।

নিহতের মা রিনা আক্তার জানান, তার ৪ ছেলে মেয়ের মধ্যে জনি সবার বড়। সে ঢাকার একটি বেসরকারী পলিটেকনিক্যালে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ৩ বর্ষে পড়াশোনা করতো।

করোনা কালীন সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এ অলস সময় বসে না থেকে বাড়ির পাশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গার উপর গড়ে উঠা দুলাল এন্টার প্রাইজ নামে একটি বালুর গদিতে ম্যানেজার হিসেবে কাজ নেয়। প্রতিদিনের মতো গতকালও সে ওই বালুর গদির হিসাব-নিকাশের কাজ করছিলো।

বালুর গদি বাড়ির পাশে হওয়ায় রাতে লোকজনের চিৎকার শুনা যাচ্ছিলো। পরে ওই বালুর গদির এক পার্টনার রাকিব মিয়া এসে খবর দেয় জনি মারা গেছে। খবর শুনে তিনি বালুর গদিতে গিয়ে দেখতে পান সে বালুর উপর পড়ে আছে। তার মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের অসংখ্য চিহ্ন রয়েছে।

নিহতের নানী আম্বিয়া খাতুন জানান, তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের শাস্তির দাবি জানান নিহতের স্বজনরা।

খিলক্ষেত থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহিম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জনি নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে লাশ পোস্টমর্ডেমের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়। নিহতের মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চেয়ে খিলক্ষেত থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বোরহান উদ্দিনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

সোহেল কিরণ, রূপগঞ্জ প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button