দেশবাংলা

স্বামীকে পিস্তলের মুখে রেখে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

নরসিংদীর পলাশে স্বামীকে পিস্তলের মুখে জিম্মি করে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে স্থানীয় এক কাউন্সিলরের ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

পলাশ থানার ওসি শেখ নাসির উদ্দিন জানান, নির্যাতিতার স্বামী অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকারের ব্যক্তিগত গাড়ি চালক ছিলেন। বেতন দেয়ার কথা বলে চালক ও তার স্ত্রীকে ব্যক্তিগত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ডেকে নিয়ে, স্বামীকে পিস্তলের মুখে জিম্মি করে পাপ্পুর সহযোগি শাহাদাত হোসেনের সহায়তায় গৃহবধূকে ধর্ষণ করে।

পুলিশ ও নির্যাতিত পরিবার সূত্রে জানা যায়, ওই গৃহবধূর স্বামী পাপ্পু খন্দকারের ব্যক্তিগত গাড়ি চালাতেন। গত কয়েক মাস ধরে বেতন না দেওয়ায় মানবেতর জীবন পার করতে হচ্ছিল স্ত্রীসহ ওই গাড়ী চালককে। একপর্যায়ে টাকা চাইতে গেলে গত ২৬ অক্টোবর রাতে টাকা দেওয়ার কথা বলে গাড়িচালক ও তার স্ত্রীকে ব্যক্তিগত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ডেকে নেন পাপ্পু খন্দকার।

পরে সেখানে স্বামীকে পিস্তলের মুখে জিম্মি করে ওই গৃহবধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন পাপ্পু খন্দকার। পরে ঘটনাটি কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেওয়া হয়। গত কয়েকদিন ধরে পাপ্পু খন্দকারওই গাড়িচালকের স্ত্রীকে তার কাছে এনে দেওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করে আসছিল।

একপর্যায়ে বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে রোববার সকালে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে ধর্ষণের অভিযোগে পাপ্পু খন্দকার ও তার সহযোগী শাহাদাত হোসেনের বিরুদ্ধে মামালা দায়ের করেন। এ ঘটনায় মামলা হলেও আসামী পাপ্পু ও তার সহযোগি পলাতক রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button