বিশ্ববাংলা

ডেকে এনে খুন করা হয় দুই বাংলাদেশিকে

দক্ষিণ আফ্রিকার নর্থ ওয়েস্ট প্রদেশের মাফিকিং শহর থেকে প্রায় সত্তর কিলোমিটার দূরে মারেসানি লোকেশন। মঙ্গলবার সেখানে ঘটে যায় সবচেয়ে হৃদয়বিদায়ক দুই বাংলাদেশি ইমন আহামেদ (৩২) ও আব্দুর রহমান (৩০) হত্যাকান্ড। গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছে রুবেল হোসেন (২৮)।

ঘটনার পর থেকে বাংলাদেশিদের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে। কেউ মুখ খুলছেনা। দুই খুনের সাথের সন্দেহবাজন অভিযুক্তদের নিয়ে কেউ তথ্য দিতে চায় না। খুনের ঘটনায় পুলিশ থেকে মামলা দায়ের করা ছাড়া প্রবাসীদের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ করা সম্ভব হয়নি।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে প্রত্যাক্ষদর্শী কয়েকজন বাংলাদেশি জানান, ঘটনার দিন (১৭ নভেম্বর) মঙ্গলবার রাত ৯ টার সময় হাসান নামে একজন বাংলাদেশীর দোকানের সামনে কয়েকজন সশস্ত্র কৃষাঙ্গ অবস্থান নিয়ে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে ত্রাস সৃষ্টি করে।

তখন হাসান দোকানের ভিতর থেকে তার ব্যবসায়িক পার্টনার রুবেল হোসেন ও আবদুর রহমান ও ইমন আহামেদকে ফোন করে ডাকাতির কথা বলে সহযোগিতার জন্য দ্রুত দোকানে আসতে বলে।

কল পেয়ে রুবেল হোসেন, আবদুর রহমান ও ইমন গাড়ি নিয়ে পাঁচ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থ হাসানের দোকানের সামনে এসে গাড়ি থেকে নামার সাথে সাথে আগে থেকে আবস্থান করে আসা কৃষাঙ্গ যুবকরা আগত তিনজনে দিকে অস্ত্র তাক করে এলোপাতাড়ি প্রায় পনের রাউন্ড গুলি করে চলে যায়। ঘটনাস্থেই ইমন ও রহিম মারা যায় এবং আহত রুবেলকে হাসপাতালে নিয়ে নিয়ে যায় স্থানীয়রা।

যেখানে দুই বাংলাদেশি নাগরিক খুন হয়েছে সেখানে হাসান এবং তার ব্যবসায়িক শেয়ারদার রুবেলের মাঝখানে সোলেমান নামক একজন বাংলাদেশি একটি নতুন করে দোকান দেয়ার চেষ্টা করে আসছিল। সাম্প্রতি এই নিয়ে হাসান ও রুবেলর সাথে সোলায়মানের হাতাহাতি হয় ।

দোকান খোলা নিয়ে চলে আসা দ্বন্দ্বের নিয়ে সোলায়মান এলাকার জাকির আলী ও শান্ত নামের অপর দুই বাংলাদেশীর সহযোগিতায় নিয়ে প্রতিপক্ষকে খুন করতে পেশাদার খুনি ভাড়া করে পারে বলে অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয় বাংলাদেশিরা।

জানাগেছে, নর্থ ওয়েস্ট প্রদেশের মাফিকিং শহর থেকে প্রায় সত্তর কিলোমিটার দূরে মারেসানি লোকেশনে শক্তিশালী মাফিয়া চক্ত গড়ে তুলেছে বাংলাদেশি কয়েকজন তারা নিরীহ প্রবাসীদের জিম্মি রেখেছে। ওই এলাকায় এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছিল। সেসময় বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ হয়ে দুইমাস চিকিৎসা নিয়ে জানে রক্ষা পেলেও দোকানের ক্রেতা দুই আফ্রিকার নাগরিক হত্যার শিকার হয়।

দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসীদের সংগঠন বাংলাদেশ পরিষদের সহসভাপতি শফিকুল ইসলাম বলেন, দুই বাংলাদেশি খুনের ঘটনা নিয়ে আমরা খোঁজ খবর নিচ্ছি। সঠিক খুনিদের চিহ্নিত করে বিচারের মুখোমুখি করতে আমরা স্থানীয় পুলিশের সাথে কাজ করে যাচ্ছি।

নিহতরা হলেন, ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর কাশিবাড়ী আব্দুর রহমান (৩০) ও নারায়নগঞ্জ জেলার রুপগঞ্জ উপজেলার ইমন আহমেদ(৩২)। একই ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়ে আশংকাজনক আবস্থা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে রুপগঞ্চের রুবেল হোসেন(২৮)।

ফারুক আস্তানা, দক্ষিণ আফ্রিকা

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button