অন্যান্যবাংলাদেশ

১৩ ডিসেম্বর: চারপাশ থেকে ঢাকাকে ঘিরে ফেলে মিত্রবাহিনী

১৩ ডিসেম্বর, ১৯৭১। চারদিকে তখন বীর বাঙালির বিজয় নিশান উড়ছে। চূড়ান্ত বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ। ততক্ষেণে ঢাকা ছাড়া, গোটা দেশ মূলত মুক্ত হয়ে গেছে। এদিন পূর্ব ও উত্তর দিক থেকে মিত্রবাহিনী পৌঁছে যায় ঢাকার প্রায় ১৫ মাইলের মধ্যে। ক্রমে চারপাশ থেকে ঢাকাকে ঘিরে ফেলে মিত্রবাহিনী।

একইদিনে পাকিস্তানকে রক্ষায় মরিয়া মার্কিন-চীনের কূটনৈতিক চেষ্টাও ব্যর্থ করে দেয় বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু রাষ্ট্র সোভিয়েত ইউনিয়ন।

১৯৭১ সালের ১৩ ডিসেম্বর পূর্ব ও উত্তর দিক থেকে মিত্রবাহিনী ঢাকার প্রায় ১৫ মাইল এলাকার মধ্যে পৌঁছে যায়। যুদ্ধুজয়ের নিশ্চিত সম্ভাবনা দেখে সেসময়  যৌথবাহিনী পরিবর্তন আনে রণকৌশলে। কারণ তারা মানুষের জানমালের ক্ষতি কমিয়ে শত্রু পাকিস্তান সেনাদের আত্মসমর্পণের দিকে নিয়ে যায়। ঢাকার দখল নেয়ায় তখন একমাত্র লক্ষ্য।

একাত্তরের রক্তঝরা এদিনে আমেরিকার উদ্যোগে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আবারও যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব উঠলে, সোভিয়েত ইউনিয়ন তাতে তৃতীয়বারের মতো ভেটো দেয়। অতঃপর, পাকিস্তান সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পনে যাওয়া ছাড়া কোন উপায় থাকে না। অল্প কিছু এলাকা ছাড়া পরাজিত, বেশিরভাগ ক্লান্ত-শ্রান্ত পাকিস্তানী সৈন্যরাই পালিয়ে জড়ো হতে থাকে ঢাকায়।

মিত্রবাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণের বিষয়ে সহকর্মীদের নিয়ে আলোচনায় বসেন জেনারেল নিয়াজি। যুক্তরাষ্ট্র তাদেরকে রক্ষা করবে বলে যে আশা পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষের ছিল তা থাকে সুদূরপরাহত।

অন্যদিকে, বাংলাদেশ নামক দেশের অভ্যুত্থান ঠেকাতে না পেরে, শেষ মুহুর্তের বাঙালি জাতিকে নেতৃত্ব ও মেধাশূন্য করতে বড় কুটকৌশল আটতে থাকে পাকিস্তানি বাহিনী। তাদের এ দেশীয় দোসর রাজাকার-আল বদরদের সহায়তায়, জাতির সূর্যসন্তানদের বেছে বেছে তুলে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যার পরিকল্পনা করে ঘাতকেরা।

আসাদ রিয়েল, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button