আন্তর্জাতিকএশিয়া

গণতন্ত্র ফেরানোর দাবিতে মিয়ানমারে বড় হচ্ছে বিক্ষোভ

মিয়ানমারে সেনাশাসনের বিরুদ্ধে টানা এবার ব্যাপকভাবে রাজপথে নেমেছে গণতন্ত্রপন্থীরা। সামরিক অভ্যুত্থানের পর সবচেয়ে বড় আন্দোলন দেখলো দেশটি। আন্দোলন ব্যর্থ করতে সামরিক সরকার ইন্টারনেট বন্ধের ঘোষণা দিলেও, প্রতিবাদে হাজার হাজার মানুষ ইয়াঙ্গুনের রাস্তায় নেমে আসেন।

ইয়াঙ্গুনে রাস্তায় জড়ো হয়েছেন, হাজারো জনতা। গণতন্ত্র ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান তারা। আন্দোলনকারীরা সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকেন। এক পর্যায়ে পুলিশ শহরের মূল রাস্তাগুলো বন্ধ করে দেয়।

প্রতিবাদের অংশ হিসেবে রাস্তার ‍উপর পানি ঢেলে দিয়ে আন্দোলনকারিরা পুলিশকে ফুল দিয়ে সামরিক সরকারের আদেশ না মানার আহ্বান জানায়। বিক্ষোভ প্রতিরোধে ইয়াঙ্গুন বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের সড়কে মোতায়েন করা হয় দাঙ্গা পুলিশ।

তরুণ শিক্ষার্থী, শ্রমিকরা ইয়াঙ্গুন বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। রাস্তায় মাথায় লাল ব্যাণ্ড পরে, বাসে হর্ণ বাজিয়ে, বাসা বাড়িতে অবস্থানকারীরা থালাবাসন বাজিয়ে বিক্ষোভে অংশ নেয়।

আন্দোলন নিয়ন্ত্রণে মিয়ানমারে ইন্টারনেট বন্ধ করে দিলেও, ব্যবহারকারীরা ভিপিএন ব্যবহার করে যোগাযোগ চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এ ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়ে, দেশটির সামরিক সরকার মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে বলে  সতর্ক করেছে।

এদিকে, আন্দোলন নিয়ে এখনো আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানায়নি সামরিক শাসকরা। গত ১ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে, মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি’কে আটক করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী।

মোহাম্মদ হাসিব, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button