বাংলাদেশঅন্যান্য

আখের তৈরি দেশি চিনি খাওয়ার পরামর্শ পুষ্টিবিদদের

বাজারে বিদ্যমান ঝরঝরে মিহি দানার সাদা চিনির চেয়ে দেশে উৎপাদিত মোটা দানার বাদামী চিনি স্বাস্থ্যের পক্ষে বেশি ভালো বলে মত দিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, পরিশোধিত ওইসব সাদা চিনি কিডনি ড্যামেজ, হৃদরোগ এমনকি ক্যান্সারের ঝুঁকিও বাড়াতে পারে। সে কারণে, আখের তৈরি দেশি চিনি খাওয়ার পরামর্শ, পুষ্টিবিদদের।

বাজারে ঝরঝরে মিহি দানার সাদা চিনি ক্রেতাদের একটু বেশি টানে। পরিষ্কার করার জন্য এতে ব্যবহৃত হয় ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান সালফার ও হাড়ের গুঁড়ো। এসব চিনি খাওয়ার ব্যাপারে বরাবরই সতর্ক করে যাচ্ছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

বাংলাদেশ খাদ্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের পরীক্ষায় দেখা গেছে, আমদানিকৃত এসব পরিশোধিত চিনি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। আখ থেকে উৎপাদিত দেশি চিনিতে ক্যালসিয়ামের মাত্রা ১৬০ দশমিক ৩২, যা পরিশোধিত চিনিতে ১ দশমিক ৫৬ থেকে ২ দশমিক ৬৫ ভাগ।

দেশি চিনিতে পটাশিয়াম ১৪২ দশমিক ৯ ভাগ, পরিশোধিত চিনিতে শূন্য দশমিক ৩২ থেকে শূন্য দশমিক ৩৫ ভাগ। ফসফরাস দেশি চিনিতে ২ দশমিক ৫ থেকে ১০ দশমিক ৭৯ ভাগ আর পরিশোধিত চিনিতে ২ দশমিক ৩৫ ভাগ।

আয়রন দেশি চিনিতে শূন্য দশমিক ৪২ থেকে ৬ ভাগ আর পরিশোধিত চিনিতে শূন্য দশমিক ৪৭ ভাগ। ম্যাগনেশিয়াম দেশি চিনিতে শূন্য দশমিক ১৫ থেকে ৩ দশমিক ৮৬ ভাগ আর পরিশোধিত চিনিতে শূন্য দশমিক ৬৬ থেকে ১ দশমিক ২১ ভাগ। সোডিয়াম দেশি চিনিতে শূন্য দশমিক ৬ ভাগ, আর পরিশোধিত চিনিতে শূন্য দশমিক ২ ভাগ।

অন্যদিকে, দেশে তৈরি আখের চিনি স্বাস্থ্যকর হলেও, এটি দেখতে অনেকটা লালচে এবং এর আর্দ্রতাও বেশি। সে কারণে, ক্রেতারা এই চিনি কিনতে আগ্রহ দেখান না। কিন্তু দেশীয় চিনিকলে উৎপাদিত চিনি তুলনামূলকভাবে নিরাপদ এবং শিশুখাদ্য হিসেবে উপযোগী বলে জানান, পুষ্টিবিদরা। সাদা ও স্বচ্ছ চিনি নিয়মিত খেলে মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকি রয়েছে বলেও জানায় তারা।

বুলবুল আহমেদ, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button