fbpx
বাংলাদেশপ্রধানমন্ত্রী

গ্লাসগো জলবায়ু সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর ৪ দফা দাবি

অর্থ ও শক্তিশালী রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাবে বৈশ্বিক অভিযোজন কর্মকাণ্ড কার্যকর হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে কপ-২৬ অনুষ্ঠানে ‘অ্যাকশন অ্যান্ড সলিডারিটি-ক্রিটিক্যাল ডিকেড’ শীর্ষক নেতৃবৃন্দের সভায় তিনি একথা বলেন। শেখ হাসিনা আরও বলেনম অভিযোজন ও প্রশমনের জন্য উন্নত দেশগুলোকে অবশ্যই তাদের ফিফটি-ফিফটি বরাদ্দসহ বার্ষিক এক শ’ বিলিয়ন ডলার জলবায়ু অর্থায়নের প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে হবে।
সোমবার স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে কপ-২৬ অনুষ্ঠানে ‘অ্যাকশন অ্যান্ড সলিডারিটি-ক্রিটিক্যাল ডিকেড’ শীর্ষক এক সভার আয়োজন করে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাগি।এতে, ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের প্রেসিডেন্ট এবং গ্লোবাল সেন্টার অন এডাপটেশন’এর দক্ষিণ এশিয়া দপ্তরের স্বাগতিক হিসেবে শেখ হাসিনা বিশ্ব নেতাদের জানান, বাংলাদেশ বিভিন্ন দেশে স্থানীয় নেতৃত্বেও অভিযোজন উন্নয়ন করছে।প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর প্রতি উন্নত দেশগুলোর সমর্থন ও সহায়তা প্রয়োজন।

এর আগে, স্থানীয় সময় দুপুরে গ্লাসগোতে কপ-২৬ এর মূল পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পৌঁছালে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভ্যর্থনা জানান জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তেনিও গুতেরেস এবং বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।পরে জলবায়ু সম্মেলনে, প্রধানমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবেলায় বিশ্ব নেতাদের সামনে ৪ দফা দাবি পেশ করেন।কপ-২৬ শীর্ষ সম্মেলনে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীসহ প্রায় ২০০টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানগণ অংশগ্রহণ করেছেন।

বাংলাটিভি/শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button