আন্তর্জাতিকযুক্তরাজ্য

সৌদির সঙ্গে গভীর সম্পর্ক ঠিক রাখার কথা পুনর্ব্যক্ত ট্রাম্পের

সৌদি রাজতন্ত্রবিরোধী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে সৌদি আরবের সম্পৃক্ততা ও আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত থাকলেও দেশটির সাথে গভীর সম্পর্ক বজায় রাখার কথা পুনর্ব্যক্ত করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে একথা বলা হয় বলে জানায় সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

ট্রাম্প তার বিবৃতিতে স্বীকার করে নেন, খাশোগি হত্যায় সৌদি যুবরাজ সালমান অবগত হয়ে থাকতে পারেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক সৌদি আরবের সাথে বলে তিনি জানান। সৌদির ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপে মার্কিন আইন প্রণেতাদের চাপ প্রয়োগের প্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এমন মন্তব্য করলেন।

সৌদি আরবকে ‘একনিষ্ঠ সহযোগী’ উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, দেশটি যুক্তরাষ্ট্রে অকল্পনীয় অংকের বিনিয়োগে সম্মত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছানির্বাসনে থাকা দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের কলাম লেখক জামাল খাশোগিকে তুরস্কের সৌদি দূতাবাসে গত ২ অক্টোবর হত্যা করা হয়। তাকে খুন করে সৌদি আরব থেকে আসা একটি হত্যাকারী দল। এরপর মৃতদেহ এসিড দিয়ে গলিয়ে দেওয়া হয়। সৌদি কর্তৃপক্ষ প্রথমে এ বিষয়ে ‘কিছু জানে না’ বললেও পরে স্বীকার করে নেয়, দুর্ঘটনাবশত খাশোগি নিহত হয়েছেন। খাশোগি সৌদি রাজতন্ত্র ও যুবরাজ সালমানের কঠোর সমালোচক ছিলেন। এই হত্যাকাণ্ডে সৌদি যুবরাজের জড়িত থাকা নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো সংবাদ প্রকাশ করছে।

খাশোগি হত্যায় সৌদি আরবে ১১ ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযুক্তদের মধ্যে পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড দাবি করা হয়। এছাড়া আরও ১০ ব্যক্তির বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে বলে জানান, সৌদি আরবের ডেপুটি পাবলিক প্রসিকিউটর শালান বিন রাজিহ শালান। তবে অভিযুক্তদের পরিচয় প্রকাশ করেনি সৌদি আরব।

এদিকে, খাশোগির হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ১৭ ব্যক্তির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। সম্প্রতি সিআইএ’র বরাতে ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, খাশাগি হত্যায় সৌদি যুবরাজ সরাসরি জড়িত। তবে এ ব্যাপারে এখনো কোন আনুষ্ঠানিক মন্তব্য করেনি হোয়াইট হাউজ। ট্রাম্প এর আগে বলেছিলেন, সোমবার অথবা মঙ্গলবারের (২০ নভেম্বর) মধ্যে সিআইএর পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।

বাংলাটিভি/এসএম/এবি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close