ক্রিকেটখেলাধুলা

দ্বিতীয় দিন শেষে ১৩৩ রানে এগিয়ে টাইগাররা

চট্টগ্রাম টেস্টে নাঈম হাসানের বিশ্বরেকর্ডের দিনে দ্বিতীয় দিনে দাপট দেখিয়েছে স্পিনাররা। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সর্বকনিষ্ঠ বোলার হিসেবে টেস্টের অভিষেকে ৫ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড করেন নাঈম হাসান। তবে, নাঈমের রেকর্ড কিছুটা ম্লান করে দিয়েছে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটিং ব্যর্থতা।

দিনের তৃতীয় ও শেষ সেশনে দু’দলের ৯ উইকেট তুলে নিয়েছেন বোলাররা। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৫৫ রান, তাতে স্বাগতিকরা এগিয়ে ১’শ ৩৩ রানে। এর আগে প্রথম ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলআউট হয় ২’শ ৪৬ রানে।

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন থেকেই দাপট দেখিয়ে আসছেন স্পিনাররা। স্পিনিং উইকেট থেকেই পুরো সুবিধা নিয়েছেন স্বাগতিক বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিন যেমন রেকর্ডের সাক্ষী হয়েছে, তেমনি দেখেছে ব্যাটসম্যানদের অসহায় আত্মসমর্পণও। এক দিনে ১৭ উইকেটের পতন হয়েছে চট্টগ্রামে।

প্রথম দিনে মুমিনুল ছাড়া বাংলাদেশের বাকি কোন ব্যাটসম্যানই নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি। যদিও স্কোর বোর্ডে প্রথম দিনই ৩’শর বেশি রান যোগ করেছিলো স্বাগতিকরা। তবে দ্বিতীয় দিন দলের রান খাতাটা বেশি বড় করতে পারেনি বাংলাদেশ। ৮ উইকেটে ৩১৫ রান নিয়ে শুরু করে, প্রথম ইনিংসে অলআউট হয় ৩’শ ২৪ রানে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে অতিথি দলের শুরুটা ভালো হয়নি। দলের ২৯ রানে কেইরন পাওয়েলকে ফিরিয়ে দেন স্পিনার তাইজুল। প্রায় ১৫ মাস পর দেশের মাটিতে টেস্ট খেলতে নামা সাকিব বোলিংয়ে ভালোই শাসন করেছেন। এক ওভারে তুলে নেন ক্যারিবিয়দের দুই উইকেট। তাতে ম্যধাহ্ন বিরতির আগেই সফরকারী দলের তিন ব্যাটসম্যান বিদায় নেন। দিনের দ্বিতীয় সেশনে শুরু হয় নাঈমের স্পিন জাদু। অভিষেকেই স্পিন ঘূর্ণিতে বোকা বানাতে থাকেন একের পর এক ক্যারিবিয় ব্যাটসম্যানকে।

হেটমায়ার ও ডওরিচ ছাড়া বাকিরা তেমন প্রতিরোধ গড়তে পারেনি। দু’জন ৯২ রানের জুটি গড়ে চাপ সামাল দেন। তবে তাদের কাউকেই তিন অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে দেননি স্বাগতিক স্পিনাররা। হেটমায়ার ৬৩ রানে মিরাজের শিকার হন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওয়ারিক্যানকে ফিরিয়ে অভিষেক টেস্টে ৫ উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব দেখান নাঈম হাসান। অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্সকে পেছনে ফেলে সর্বকনিষ্ঠ বোলার হিসেবে টেস্ট অভিষেকে ৫ উইকেট নেয়ার রেকর্ড গড়েন বাংলাদেশি এই ক্রিকেটার।

বাংলাদেশের অস্টম বোলার হিসেবে অভিষেক টেস্টে পাঁচ উইকেট নেয়ার মাইলফলকও স্পর্শ করেন নাঈম। শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের উইকেট সাকিব তুলে নিলে প্রথম ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলআউট হয় ২৪৬ রানে। ৭৮ রানের লিড পেয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে চরম বিপর্যয়ে পড়ে স্বাগতিকরা।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close