দেশবাংলাপ্রধানমন্ত্রী

ওবায়দুল কাদের দেশে ফিরলে তাকে নিয়ে সেতু দেখতে যাব

ভবিষ্যতে যে কোন বিদেশ সফরে শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেই ক্রিকেট দলকে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শনিবার গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সে কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনকালে গতকালের ক্রাইস্টচার্চ হামলা প্রসঙ্গে কথা বলেন তিনি।

সেই সঙ্গে আবারও তীব্র নিন্দা জানান মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার। প্রধানমন্ত্রী নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলার ঘটনায় বাংলাদেশিসহ ব্যাপক হতাহতের ঘটনায় শোক জানান। মসজিদের মাঝে ঢুকে হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সন্ত্রাসীদের কোন ধর্ম নেই’।

সরকার দেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। এসময় দেশজুড়ে সরকারের নেয়া বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রম তুলে ধরেন তিনি। একই সঙ্গে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন ওবায়দুল কাদেরের জন্য দোয়া প্রার্থনা করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, সেতুমন্ত্রী দেশে ফিরলে তাকে সাথে নিয়েই যাবেন সেতু পরিদর্শনে। এদিন ভুলতায় একটি চারলেন ফ্লাইওভার এবং ঢাকা–সিলেট মহাসড়কে লতিফপুরে একটি রেলওয়ে ওভারপাসও উদ্বোধন করেন করে শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আরও তিনটি নদীর ওপর চারলেনের সেতু নির্মিত হবে। ঢাকা-চট্টগ্রামের রাস্তা চারলেন করা হয়েছে। সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, ৪০০ মিটার দৈর্ঘ এবং ১৮ মিটার প্রস্থ দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুটি যানচলাচলের জন্য খুলে দিলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট অনেকটা কমে আসবে। দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় মেঘনা-গোমতি সেতুর নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে এবং খুব শিগগির এ সেতু দুটিও যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে।

জাপানের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওবায়শি কর্পোরেশন, শিমিজু করপোরেশন, জেএফই ইঞ্জিনিয়ার কর্পোরেশন এবং আইএইচআই ইনফ্রা সিস্টেম কোম্পানি লি. ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় মেঘনা-গোমতি সেতুর পাশাপাশি দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করে। আগামী জুনে এই সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল, তবে নির্ধারিত সময়ের প্রায় চার মাস আগেই সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়।

বাংলাটিভি/প্রিন্স

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close