দেশবাংলা

৭ মাসেও বিচার পায়নি অন্ত:সত্বা ধর্ষিতা

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ধর্ষণের শিকার ৯ম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রী সাত মাসের অন্ত:সত্বা হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় দীর্ঘদিন ধরে ঐ ছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা সমাজপতিদের কাছে বিচার চেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও কোন সমাধান মেলেনি।

এমনকি ৭ মাস আগে থানায় মামলা করলেও আসামী ধরতে পারেনি পুলিশ। উল্টো আসামীরা মামলা তুলে নিতে ঐ ছাত্রীর পরিবারকে হুমকী-ধমকী দিয়ে চলেছে।

গত সাত মাস আগে কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার হরিশ্বর তালুক গ্রামের নবম শ্রেনীর ছাত্রী মমতা আক্তারকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে একই গ্রামের খাসপাড়া এলাকার কলিম ব্যাপারীর ছেলে সুমন মিয়া। পরে অন্ত:সত্বা হয়ে পড়লে সুমনের পরিবারকে বিয়ের কথা বলে ঐ ছাত্রীর পরিবার।

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় বিচার চেয়ে গত ৩ মার্চ রাজারহাট থানায় মামলা দায়ের করেন মমতার বাবা মতিয়ার রহমান। কিন্তু আসামী প্রভাবশালী হওয়ায়, অভিযুক্ত সুমনকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

 স্কুল ছাত্রীর বাবা-মা জানান, দীর্ঘদিন ধরে ঐ ছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা সমাজপতিদের কাছে বিচার চেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোন সমাধান মেলেনি। এমনকি ৭ মাস আগে থানায় মামলা করলেও আসামীকে ধরেনি পুলিশ।

এ অপরাধের বিচার না পাওয়ায় হতাশ প্রতিবেশিরাও। পুলিশ দ্রুত অপরাধীকে গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করা হবে  এমন প্রত্যাশা এলাকাবাসীর

দীর্ঘ সাত মাসে আসামী ধরতে না পারলেও তদন্ত সাপেক্ষে দ্রুত মামলাটি নিষ্পত্তি করা হবে বলে জানালেন রাজারহাট থানার পুলিশ পরিদর্শক মো: নজরুল ইসলাম।

ফয়সাল শামীম, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close