দেশবাংলা

জেল-জরিমানা করেও বন্ধ হচ্ছে না জাটকা শিকার

অভিযান চালিয়ে জেল-জরিমানা করলেও মাছ ধরা পুরোপুরি বন্ধ হয়নি মাদারীপুরে। সন্ধ্যার পর থেকে ভোররাত পর্যন্ত পদ্মা জুড়ে চলছে মাছধরা। আর  নদীর চরে মাছ রেখেই পাড়ের বাজারে তা বিক্রি হচ্ছে। ঘটেছে ভ্রাম্যমান আদালতের ওপর হামলার ঘটনাও। আটকের পর সাজাপ্রাপ্ত হয়েছে প্রায় একশ’ জেলে।

৯ অক্টোবর থেকে ২২ দিন ইলিশ মাছ ধরায় সরকারের নিধেধাজ্ঞা রয়েছে। এ নিষেধজ্ঞা বাস্তবায়নে গত কয়েকদিন গভীর রাতে পদ্মা পাড়ের জেলার শিবচরের কাঠালবাড়ি ঘাটে অভিযান পরিচালনা করে ভ্রাম্যমান আদালত। ধরা পড়ে মাছ বোঝাই একাধিক নৌকা। প্রশাসনের কঠোর নজরদারি আর সাজা দেয়ার পরও থামছেনা ইলিশ শিকার।

শিকার হওয়া এসব মাছ বিক্রি হচ্ছে নদী পাড়ের বাজার, নদীর চরে কাশবনের মধ্যে এমনকি মুঠোফোনের মাধ্যমে ক্রেতাকে ডেকে নিয়েও বিক্রি হচ্ছে মাছ।

কাজীরসুরা বাজারে প্রকাশ্যে ইলিশ বিক্রি ঠেকাতে গিয়ে হামলার শিকার হয়ে গুলি চালাতে বাধ্য হয় প্রশাসন। ইলিশ রক্ষায় অভিযান অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এছাড়াও শরীয়তপুরের জাজিরা, মুন্সীগঞ্জের লৌহজং, ঢাকার দোহার, ফরিদপুরের সদরপুরেও পদ্মা নদীতে লুকিয়ে লুকিয়ে ইলিশ ধরছে একশ্রেণির জেলে।

মেহেদী হাসান সোহাগ, মাদারীপুর প্রতিনিধি 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close