বিশ্ববাংলা

আমেরিকায় স্ত্রীর প্রতারণায় সর্বস্ব হারালেন বাংলাদেশি

আমেরিকায় অবস্থানকালে স্ত্রীর প্রতারণায় সর্বস্ব হারিয়ে দেশে ফিরে, জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ করেছেন মৌলভীবাজারের আব্দুস শুকুর। এমনকি দেশে আসার পর এলাকায় থাকা স্ত্রীর পরিবারের লোকজন প্রাননাশের হুমকী দিচ্ছেন বলেও জানান ভুক্তভোগী এই প্রবাসী। তবে হুমকীর বিষয়টি অস্বীকার করেছেন অভিযুক্তরা।

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ছালিয়া গ্রামের মৌলভী সিরাজ উদ্দীনের ছেলে আব্দুস শুকুর আমেরিকার মিশিগানে অবস্থানকালে, ২০১৬ সালে প্রতিবেশি ছালিয়া উজিরেরপুর চক গ্রামের আব্দুল মাতিকের মেয়ে পপি আক্তারে সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সংসার শুরু করেন।

বিয়ের পর, বিবাহ সূত্রে দেশটির নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় স্ত্রী ও শশুরের কথামত দুটি বাড়ী ক্রয় করে দেন বলে জানান, আব্দুস শুকুর।

কিছুদিন পর আব্দুস শুকুর জানতে পারেন তার স্ত্রী পরকিয়ায় লিপ্ত। এমনকি কথিত প্রেমিক কয়েকটি আপত্তিকর ছবিও পাঠায় তার কাছে। বিষয়টি সম্পর্কে স্ত্রীর কাছে জানতে চাইলে, তিনি স্বামীর বিরুদ্ধে উল্টো মিথ্যা অভিযোগ এনে, পুলিশের কাছে তুলে দেয়।

দেশটিতে জেল খেটে বাংলাদেশে আসার পর জীবিকার সন্ধ্যানে পাড়ি জমান, সংযুক্ত আরব আমিরাতে। সম্প্রতি ছুটিতে দেশে আসেন আব্দুস শুকুর। এদিকে আমেরিকা থেকে ছুটিতে দেশে আসা তার শশুর ও শাশুড়ী তাকে বিভিন্নভাবে হুমকী দিচ্ছেন বলে জানান আব্দুস শুকুর।

এদিকে, বিয়ের বিষয়টি স্বীকার করলেও, হুমকীর দেয়ার বিষয়টি মিথ্যা বলে জানান তার শশুর।

গত ৮ ডিসেম্বর সুবিচার চেয়ে বাংলাদেশে অবস্থিত আমেরিকা এম্বাসিতে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন, আব্দুস শুকুর। আমেরিকায় বিয়ের কিছু দিন পর, প্রতারণা করে আব্দুস শুকুরকে তার স্ত্রী জেল খাটিয়ে দেশে পাঠিয়ে দিয়েছেন বলে জানান, এলাকাবাসী।

দ্রুত সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রতারণার বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করবে প্রশাসন, এমন প্রত্যাশা ভুক্তভোগী প্রবাসীসহ স্থানীয়দের।

জাকির মনির, কুড়াউড়া প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close