আইন-বিচারবাংলাদেশ

শাবনূর ও সামিরা দুজনকেই চেয়েছিলেন সালমান শাহ

২৪ বছর পর খোলাসা হল চিত্রনায়ক সালমান শাহ’র মৃত্যু রহস্য। তদন্তের দায়িত্বে থাকায় সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) বলছে, সালমান শাহকে হত্যার অভিযোগের কোন প্রমান পাওয়া যায়নি। পারিবারিক কলহের মানসিক চাপ থেকে তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন।

জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সালমান শাহর মৃত্যুর তদন্তের বিষয়ে জানাতে সোমবার সংবাদ সম্মেল করে পিবিআই। এসময় সংস্থাটির প্রধান বনোজ কুমার মজুমদার বলেন, ব্যক্তিগত জীবনে চলচ্চিত্র অভিনেত্রী শাবনূরের সাথে ঘনিষ্ঠতা, তাকে বিয়ে করে দুই বউ নিয়ে সংসারও করতে চেয়েছিলেন সালমান শাহ। কিন্তু তা মেনে নেননি স্ত্রী সামিরা। এসব দুঃশ্চিন্তাই একপর্যায়ে সালমানকে নিয়ে যায় আত্মহত্যার পথে।

পিবিআইয়ের দাবি, সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি তদন্তে। মামলায়, সালমানের স্ত্রী সামিরা, তার স্বজন, প্রতিবেশে, বন্ধু-বান্ধব, সহশিল্পীসহ সকলের বক্তব্যে এটিই প্রতীয়মান হয়েছে।

অনবদ্য অভিনয়ে বাংলা সিনেমার কোটি দর্শকদের হৃদয় কাড়েন চিত্রনায়ক সালমান শাহ। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর বেডরুমের সিলিং ফ্যানে ঝুলন্ত অবস্থার তার লাশ উদ্ধার করা হয়। দীর্ঘ এ  সময়েও সালমান শাহর মৃত্যুর রহস্য পরিষ্কার হয়নি। এর আগে কয়েক দফা তদন্তে সালমানের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে উল্লেখ করা হলেও, তা মেনে নিতে পারেনি তার পরিবার ও ভক্তরা।

সর্বশেষ ২০১৬ সালের শেষদিকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন পিবিআইকে নতুন করে তদন্তভার দেয়া হয়। এরপ্রেক্ষিতে তদন্তের তথ্য প্রকাশ করলো পিবিআই।

মাসুদ সুমন, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close