বিশ্ববাংলা

মাহে রমজানে সৌদি আরবে এবার ভিন্ন চিত্র

আর মাত্র কয়েকদিন পরই শুরু হতে যাচ্ছে মুসলমানদের মাসব্যাপী ধর্মীয় আয়োজন মাহে রমজান। এ মাসকে ঘিরে প্রতিবছরই কেনাকাটার ধুম লেগে যায় ইসলাম ধর্মের ভিত্তিভূমি সৌদি আরবে। কিন্তু, করোনার কারনে এ বছর দেখা যাচ্ছে ভিন্ন চিত্র। জনসমাগমের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় মসজিদগুলোতে বাতিল করা হয়েছে তারাবী নামাজসহ ইফতার আয়োজন। ব্যাবসায়ীরা রয়েছেন লোকসানের মুখে। সকলেই রয়েছেন দুশ্চিন্তায়।

সৌদি আরবে করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে দীর্ঘদিন ধরেই চলছে লকডাউন আর কারফিউ। স্থবির হয়ে পড়েছে উৎপাদন ও বন্টনব্যাবস্থা। বড় কিছু শপিংমল, ঔষধের দোকান আর জরুরী কিছু প্রতিষ্ঠান ছাড়া প্রায় সারা দেশই অচল হয়ে পড়েছে ।

প্রতিবছর রমজানকে কেন্দ্র করে যে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়, এবার তার ছিটেফোটাও নেই । ঘরে ঘরে আতংক আর দুশ্চিন্তায় সৌদি আরবের বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। আপস মক্কা-মদীনায় তারাবী নামাজ সংক্ষেপ করে দশ রাকাত করা হয়েছে। তা ও পড়া হবে অল্প কিছু মুসুল্লীর সমন্বয়ে। সবাইকে ঘরে তারাবী আদায়ের আদেশ দেয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হবে ইফতার আয়োজন।

এদিকে, রমজানকে কেন্দ্র করে প্রতিবছর ব্যাবসায়ীরা রমরমা পরিবেশে বেচাকেনা করে কিছু বাড়তি মুনাফা করে থাকেন। এবারও তাই করার আশা ছিলো ব্যাবসায়ীদের। কিন্তু করোনায় তাদের সব স্বপ্ন ভেঙ্গে গেছে। অধিক মুনাফা তো দূরের কথা, নিজেদের স্বাভাবিক জীবন নির্বাহের খরচ আর কর্মচারীর বেতন পরিশোধের দুশ্চিন্তাই তাদের কাছে বড় হয়ে উঠেছে।

অন্যদিকে, করোনা ভাইরাস ঠেকাতে সৌদি আরবে চলছে টানা ২১ দিনের লকডাউন । সেইসাথে রাজধানী রিয়াদসহ ১১টি বড় শহরে ২৪ ঘণ্টাব্যাপী অনির্দিষ্টকালের কারফিউ চলছে । এছাড়া, অন্যান্য শহরে বিকেল ৩টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত কারফিউ চলছে।

গোলাম কিবরিয়া, সৌদী আরব প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close