দেশবাংলা

শ্রমিক সংকটে বিপাকে কৃষক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও মুন্সীগঞ্জে বোরো ধানকাটা শ্রমিক সংকটে বিপাকে পড়েছে কৃষকরা। জমিতে ধান পাকলেও করোনা আতংকে দিন কাটছে। যেন মিলছেই না ধানকাটা শ্রমিক।কিছুকিছু এলাকার শ্রমিক পাওয়া গেলেও, জমির ধান ঘরে তুলতে দিতে হচ্ছে উচ্চমুল্য।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা কৃষি অফিসের তথ্যমতে, ১০টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভায় ১৩ হাজার ৬’শ ৫০ হেক্টর জমিতে এবার বোরো আবাদ হয়েছে। প্রথমে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের সম্ভাবনা থাকলেও ধানের শীষ বেরোনোর সময় ব্লাস্ট জাতীয় রোগের কারনে নষ্ট হয়ে গেছে জমির ফসল, কৃষকদের দাবী ব্লাস্ট রোগে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অর্ধেক ফসল।

তবে সময়মতো ধান কেটে ঘরে তুলতে পারলে সে ক্ষতি হয়তো পুষিয়ে নেয়া যেতো। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে বিভিন্ন জায়গায় থেকে ধান কাটা শ্রমিক না আসায় সংকটে পড়েছে কৃষকরা।

ধান কাটার শ্রমিক সংকটের কথা স্বীকার করে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাজেরা বেগম বলেন, চাষিরা যাতে ঘরে ধান তুলতে পারে সেই জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। মুন্সীগঞ্জ জেলায় ২৪ হাজার ৫’শ হেক্টর জমিতে ধানের আবাদ হয়েছে।

এর মধ্যে শ্রীনগরের আড়িয়ালবিলে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে আগাম ধানের চাষ হয়। করোনায় শ্রমিক আসতে না পারায় এই ধান ঘরে তোলা নিয়ে বিপাকে পড়েছে আবাদকারিরা।

বাংলা টিভি/রাসেল

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close