দেশবাংলা

দিনাজপুরে লিচুর ফলন ভালো হলেও দুশ্চিন্তায় চাষিরা

দিনাজপুরে লিচুর ফলন ভালো হলেও করোনা পরিস্থিতিতে বেশ দুশ্চিন্তায় রয়েছেন বাগানীরা। গত দুই বছর রমজান মাসে লিচু পাকায় লোকসান গুনতে হয়েছে তাদের। এদিকে, রাঙামাটিতে আনারসের ভালো ফলন হয়েছে। কিন্তু করোনার প্রভাবে সব কিছুই বন্ধ থাকার এ ফল নিয়ে বিপাকে পড়েছে চাষিরা।

দিনাজপুরে সাড়ে ৬ হাজার হেক্টর জমিতে লিচুর বাগান রয়েছে। তবে দিনাজপুর সদর, বিরল, কাহারোল ও চিরিরবন্দর উপজেলায় বাগানের সংখ্যা বেশি। এই অঞ্চলে বম্বাই, মাদ্রাজী, বেদানা, কাঠালী, চায়না থ্রীসহ বিভিন্ন জাতের লিচু চাষ হয়ে থাকে। বর্তমানে লিচুর বাগান পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা। তবে ফলন ভালো হলেও করোনা পরিস্থিতি নিয়ে দূশ্চিন্তায় রয়েছেন তারা।

লিচু বাগানীদের করোনা পরিস্থিতিতেও নানা পরামর্শ দেয়া হচ্ছে জানিয়ে,জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক বলেন,এ ফল বিক্রিতে সব রকমের সহযোগিতা করা হবে।

এদিকে, রাঙামাটিতে চলতি বছর ২হাজার ১শ ২৫ হেক্টর জমিতে আনারসের চাষ হয়েছে। চৈত্র মাস থেকে শুরু হয়ে বর্ষার পূর্ব পর্যন্ত আনারসের মৌসুম ধরা হয়। ইতোমধ্যে বাগানে আনারস পাকতে শুরু করেছে। যার ফলে চাষিরাও আনারস নিয়ে আসছেন বাজারে। তবে বাজারে আসলেও করোনা ঝুঁকির মোকাবেলায় দেশে অঘোষিত লকডাউনে বাজারে ক্রেতা নেই তেমন একটা।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেরিতে ফল পরিপক্ক হওয়ার জন্য বিশেষ হরমোন প্রয়োগের পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি বিভাগ।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close