বিশ্ববাংলা

১৪ মাস ধরে আটকে পড়ে আছে ৪০ হাজার কুয়েতির মালামাল

চট্টগ্রাম বন্দরে প্রায় ১৪ মাস যাবৎ আটকে পড়ে আছে সী কার্গোতে পাঠানো প্রায় ৪০ হাজার কুয়েত প্রবাসীদের মালামাল।

কুয়েত থেকে যে সকল প্রবাসীরা দেশে পরিবার পরিজনের জন্য গৃহস্থালী আসবাবপত্র ও প্রয়োজনীয় মালামাল সী কার্গোতে বুক দিয়েছেন, সেসব দেড় মাসের মধ্যে পোঁছানোর কথা। কিন্তু প্রায় ১৪ মাস পার হয়ে গেলেও, এখনো সেগুলো বুঝে পায়নি তাদের পরিবার।

এ পরিস্থিতিতে কার্গো সেবার সাথে সংশ্লিষ্ট প্রবাসী ব্যবসায়ীরাও ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। কুয়েতে বাংলাদেশী মালিকানাধীন দুই শতাধিক কার্গো প্রতিষ্ঠান রয়েছে, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে মালামাল প্রেরণের ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরে এসব প্রতিষ্ঠান বেশ সুনামের সঙ্গে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

কিন্তু এ ব্যবসায় দেখা দিয়েছে স্থবিরতা। আইপিসিপি ছাড়া মালামাল পাঠানোর অভিযোগে, চট্টগ্রাম বন্দর থেকে খালাসের অনুমতি মেলেনি প্রায় ৪০ হাজার কুয়েত প্রবাসীর মালামাল। ১৪ মাস ধরে আটকে আছে সেগুলো।

আর কুয়েতের কার্গো ব্যবসায়ীরা বলছেন, প্রবাসীদের পাঠানো কসমেটিকসসহ বিভিন্ন ভোগ্যপণ্য কখনোই ব্যবসায়িক পণ্য হতে পারে না এবং এক্ষেত্রে আইপিসিপি করে মালামাল পাঠানো তাদের পক্ষে সম্ভব নয়।  সমস্যা সমাধানে সরকারের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

ব্যবসায়ীরা জানান, কাস্টমস নিয়মবহির্ভূত কোনোকিছু করা হয়নি, ভবিষ্যতেও সব নিয়ম মেনেই ব্যবসা পরিচালনা করতে চান তারা। কার্গো মালামালের জটিলতা নিয়ে কুয়েত প্রবাসী কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকে, কুয়েতের বাংলাদেশ দূতাবাস বরাবর গত বছর লিখিতভাবে অবহিত করা হয়।

পরে দূতাবাস থেকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে লিখিত আরেকটি আবেদনের মাধ্যমে, সমস্যা সমাধানের জন্য অনুরোধ করা হয়।

অন্যদিকে প্রবাসীরা বলছেন, কষ্টার্জিত অর্থে কেনা মালামালে অনেকাংশই হয়তো এরইমধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে, তবুও বাকি পন্যগুলো যেনো তাদের স্বজনদের হাতে পৌছানোর উদ্যোগ নেয়া হয়।

বাংলা টিভি/রাসেল

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close