বিশ্ববাংলা

পুরোদমে প্রবাসীদের সেবা দিচ্ছে জেদ্দা কনস্যুলেট

গত ২১ জুন থেকে সৌদি সরকার লকডাউন প্রত্যাহার করার পর, পুরোদমে প্রবাসীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেদ্দা। প্রতিদিন পনেরশ থেকে দুই হাজার প্রবাসীকে সেবা দেয়া হচ্ছে। প্রায় ৪ মাসের কাজ জমা পড়ে যাওয়ায়, প্রবাসীরা কিছুটা বিলম্বে সেবা পেলেও, আগামী সপ্তাহ থেকে তা স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন কনসাল জেনারেল।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় ৪ মাস সরকারি অফিস আদালতে ৪০ ভাগ স্টাফ দিয়ে পরিচালনার নির্দেশনা দেন সৌদি সরকার। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় দৈনিক ৫০ জনের বেশি প্রবাসীকে সেবা দিতে পারেনি কনস্যুলেট কর্তৃপক্ষ। এসময় অনলাইন সেবা অব্যাহত থাকলেও, স্বশরীরে কন্সুলেটে আসতেও পারেননি দেশটিতে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এর মধ্যে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকায়, দেশ থেকে সময় মত পাসপোর্ট না যাওয়ায় প্রবাসীরা যেমন পাসপোর্ট হাতে পাননি, তেমনি পাসপোর্ট রি ইস্যুর জন্য জমা দিতে না পারায়, অনেকের পাসপোর্ট এর মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। এতে করে তারা আকামাও নবায়ন করতে পারেননি।

২১ জুন সৌদি থেকে কারফিউ প্রত্যাহারের পর, কনস্যুলেট পুনরায় সেবা কার্যক্রম শুরু করে। এখন প্রতিদিন অনেক প্রবাসী কনস্যুলেট থেকে সেবা নিতে ভীড় জমাচ্ছেন, যাদের বেশিরভাগ ১ বছরের নবায়ন প্রত্যাশী, আবার অনেকে নতুন পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে যাচ্ছেন।

প্রতিদিন পনেরশ থেকে দুই হাজার প্রবাসীকে সেবা দিচ্ছে কনস্যুলেট, অন্য সেকশনের কাজ কমিয়ে পাসপোর্ট সেকশনে বাড়ানো হয়েছে জনবল। প্রতিদিন ২ থেকে ৫ ঘন্টা অতিরিক্ত কাজ এবং ছুটির দিনে এসেও, অফিস করছেন, কনস্যুলেট কর্মকর্তারা।

৪ মাসের জমে যাওয়া পাসপোর্ট ডেলিভারি দিতে কিছুটা বিলম্ব হলেও, তা আগামী সপ্তাহে স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন, কনসাল জেনারেল ফয়সল আহমেদ।

এদিকে, পাসপোর্ট বিভাগের দায়িত্বে থাকা কাউন্সিলর মোহাম্মদ কামরুজজামান জানান, প্রিন্ট হয়ে আসা পাসপোর্ট প্রবাসীদের হাতে তুলে দিতে পাসপোর্ট ভিসা উইং এর কর্মকর্তা কর্মচারী ছুটির দিনেও কাজ করে যাচ্ছেন।

কনস্যুলেট এর প্রথম সচিব মোস্তফা জামিল খান জানান, পাসপোর্ট সেকশনে এখন যেভাবে সেবা দেয়া হচ্ছে, এর পাশাপাশি প্রবাসীরা যদি অনলাইন থেকে পাসপোর্ট এর আবেদন করেন শীগগিরই এর সংকট কেটে যাবে।

এখন থেকে ছুটির দিন ছাড়া যে কোন দিন প্রবাসীরা ফোন কল বা এপয়েন্টমেন্ট ছাড়াই, কনস্যুলেট থেকে সরাসরি সেবা নিতে পারবেন।

সাইফুল রাজীব, জেদ্দা প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close