অন্যান্যঅর্থনীতিআন্তর্জাতিকএশিয়া

মালয়েশিয়ায় অবৈধ হয়ে পড়া প্রবাসীদের সমস্যা সমাধানে দু’দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের আরও উন্নয়ন প্রয়োজন

জীবিকার তাগিদে মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমানো বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশী ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়াসহ অন্যান্য কারনে অবৈধ হয়ে পড়েছেন। চলমান করোনা পরিস্থিতিতে অবৈধ হয়ে পড়া এসব প্রবাসীর সমস্যা সমাধানে দু’দেশের মধ্যকার কূটনৈতিক সম্পর্কের উন্নয়ন প্রয়োজন বলে মনে করছেন প্রবাসীরা। করোনা প্রাদূর্ভাবের প্রথমদিকে দেশটির বাংলাদেশী চিকিৎসকরা, মেডিকেল টিম গঠন করে প্রবাসীদের স্বাস্থ্য সেবা দিলেও, এখন আর তা প্রয়োজন নেই বলে মনে করছেন প্রবাসী চিকিৎসকরা। নানা কারনে সংকটে পড়া প্রবাসীরা দূতাবাসে ফোন করে সাড়া না পাওয়ার অভিযোগ করলে, তা অস্বীকার করেছে দূতাবাস।

অর্থনৈতিক সচ্ছলতা আর উন্নত জীবনযাপনের স্বপ্ন নিয়ে, ১০ লক্ষাধিক বাংলাদেশী পাড়ি জমিয়েছেন মালয়েশিয়ায়। অল্প সংখ্যক প্রবাসী সমুদ্রপথে অবৈধভাবে গেলেও, সিংহভাগ প্রবাসী দেশটিতে গেছেন বৈধ ভিসায়। কিন্তু চলমান করোনা পরিস্থিতিতে পড়ে, তাদের অনেকেই বর্তমানে অবৈধ হয়ে পড়েছেন। অবৈধ হয়ে পড়া এ বিপুল সংখ্যক প্রবাসীকে দেশে ফিরিয়ে না নিয়ে, দু’দেশের মধ্যে আলোচনা সাপেক্ষে তাদের বৈধতা প্রদানসহ, কাজে নিয়োগ দেয়া যেতে পারে বলে মনে করছেন প্রবাসী বিশিষ্টজনেরা। মালয়েশিয়ার সাথে কুটনৈতিক সম্পর্ক উন্নয়ন করে এ সমস্যার সমাধান করা যেতে পারে বলে মন্তব্য তাদের।

করোনা প্রাদূর্ভাবের শুরুর দিকে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশী চিকিৎসকরা একত্রিত হয়ে, মেডিকেল টিম গঠন করে প্রবাসীদের সচেতন করাসহ, তাদের প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যসেবা দিয়েছিলেন। বর্তমানে মালয়েশিয়ায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে আসায়,  তার আর প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য প্রবাসী চিকিৎসকদের। তবে, চলমান পরিস্থিতিতে বেকার হয়ে অনেকেই নিজের এবং দেশে থাকা পরিবার পরিজনের জন্য দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। এ থেকে সৃষ্টি হচ্ছে নানা মানসিক সমস্যা। অনেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছেন। তাদের এখন মানসিক সান্তনা প্রয়োজন বলে মন্তব্য চিকিৎসকদের।

প্রবাসীরা নানা সমস্যায় পড়ে দূতাবাসে ফোন করে সাড়া পাননি, এমন অভিযোগে, দূতাবাসের কাছে জানতে চাইলে এ অভিযোগ সত্য নয় বলে দাবী করেছে দূতাবাস । স্বল্প সংখ্যক লোকবল নিয়ে বিপুল সংখ্যক প্রবাসীকে সেবা দিতে হচ্ছে বলেই ফোন লাইন ব্যাস্ত থাকছে। এদিকে, ৩১ আগষ্ট চলমান রিকভারী মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার শেষ হলে দেশে থাকা প্রবাসীদের মালয়েশিয়া ফিরতে দেয়ার ব্যাপারে, দেশটির সরকার পুনর্বিবেচনা করবে বলে জানানো হয়েছে।

বাংলাটিভি/শহীদ

 

 

 

 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button