অন্যান্যবাংলাদেশ

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেশিরভাগ মানুষের

দেশে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি না কমলেও এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে ভীতি কমেছে অনেক খানি। মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেশিরভাগ মানুষের মাঝে। তবে এখনই মাস্ক ব্যবহার বন্ধ করলে করোনা বাড়বে- জানিয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে অবশ্যই সরকারকে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে।

৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর অনেকটাই সচেতন হয়েছিলো দেশের অধিকাংশ মানুষ। মাস্ক, হ্যান্ড সেনিটাইজার, গ্লাভস ব্যবহার বেড়ে গিয়েছিল বহুলাংশে। তবে দেশে, করোনার সংক্রমণ না কমলেও কমছে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীর ব্যবহার। এরই মধ্যে ঘরের বাইরে মাস্ক ব্যবহার না করলে আইনী ব্যবস্থার বিধান রেখে প্রজ্ঞাপনও জারি করেছে সরকার।

তবে, দীর্ঘ ৬৬ দিন বন্ধের পর জনজীবন স্বাভাবিক হয়ে আসায় বাজার দোকান রাস্তা ঘাটে প্রায় সবাই চলাফেরা করছেন আগের মতই। মাস্ক নেই বেশির ভাগ মানুষের মানুষের মুখে। জানতে চাইলে দিচ্ছেন নানান অজুহাত। অনেকে আবার নিজেকে আড়াল করছেন।

সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকি থাকায় এখনই মাস্ক পড়া বন্ধ করা যাবে না উল্লেখ করে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডাঃ লেলিন চৌধুরী জানান, মাস্ক পরার ক্ষেত্রে প্রয়োজনে সরকারকে আরো কঠোর হতে হবে। মাস্ক পরার ক্ষেত্রে এখনি সবাই সচেতন না হলে আগামীতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি আরো বাড়বে বলেও জানান এই জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button