দেশবাংলা

জগন্নাথপুরে দখলমুক্ত হলো জমিদারবাড়ির ৬৩ শতাংশ ভূমি

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও জমিদারবাড়ির দখলকৃত জায়গা উচ্ছেদ করেছে প্রশাসন। বৃহস্পতিবার দুপুরে জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ইয়াসির আরাফাত পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্হলে গিয়ে দখলকৃত জায়গার দেয়াল ভেঙে জমিদার বাড়ির দখলকৃত ৬৩ শতাংশ জায়গা দখলমুক্ত করেন।

এলাকাবাসী ও জগন্নাথপুর উপজেলা ভূমি কার্যালয় সূত্র জানায়, উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের পাইলগাঁও গ্রামের জমিদার ব্রজেন্দ্র নারায়ণ চৌধুরীর বংশধরগন জমিদার বাড়ির জায়গা জমি ফেলে ভারতে চলে যান।

সেই থেকে জমিদার বাড়ির জায়গা জমি দখলে করে নেন এলাকার চিহ্নিত ভূমি খেকো চক্র। বিভিন্ন সময় এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে প্রশাসন দখল উচ্ছেদ করে। সম্প্রতি পাইলগাঁও গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী সুহেল মিয়া জমিদার বাড়ির ১০শতাংশ জমির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে ৬৩ শতাংশ জমি দখল করেন।

এবিষয়ে জানতে দখলের অভিযুক্ত লন্ডন প্রবাসী সুহেল মিয়ার বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ইয়াসির আরাফাত জানান, পাইলগাঁও জমিদার বাড়ি উপজেলার একটি ঐতিহাসিক নিদর্শন। এটিকে সংরক্ষিত পুরাকীর্তি হিসেবে ঘোষণা করার জন্য ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে থেকে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

গত বছরের ৭ নভেম্বর আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এর নিকট পাইলগাঁও জমিদার বাড়ির সংরক্ষণের জন্য লিখিত আবেদন করা হয়। যার প্রেক্ষিতে সংরক্ষিত পুরাকৃতি হিসেবে গেজেট ঘোষণার লক্ষ্যে আমাদের নিকট থেকে যাবতীয় তথ্য নেওয়া হয়েছে।

আমরা আশা করছি শ্রীঘ্রই পাইলগাঁও জমিদার বাড়ি প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের সংরক্ষণ করবে। তিনি বলেন, জমিদার বাড়ির ৬৩ শতাংশ জায়গা ইতিমধ্যে দখল হয়ে গেলে আমরা তা উদ্ধার করি।

গোবিন্দ দেব, জগন্নাথপুর প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button