অন্যান্যবাংলাদেশ

স্বপ্ন থেকে বাস্তবে পদ্মাসেতু

পদ্মা সেতু এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব। একসময়ের স্বপ্নের সেতু এখন বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে দৃষ্টিসীমার দিগন্তজুড়ে। পদ্মার পাড় থেকে দেখা যাচ্ছে পিলারের দীর্ঘ সারি, তার উপর বসানো ইস্পাত কাঠামো। সবকিছু ঠিক থাকলে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতেই চালু হবে এই স্বপ্নের সৌধ।

দৃষ্টিসীমার দিগন্তজুড়ে যতোদুর চোখ যায়, পদ্মায় সীমাহীন জলরাশি। তার বুকের মাঝ দিয়ে ইংরেজী বর্ণ এস এর মতো একে বেকে চলেছে স্বপ্নের পদ্মাসেতু। প্রমত্তা পদ্মায় প্রতিদিনই স্বপ্নকে ছাড়িয়ে যাওয়ার হাতছানি। নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলতে, সেতুর নির্মাণকাজ এগিয়ে চলেছে দুর্বার গতিতে। বিশাল কর্মযজ্ঞের মধ্যদিয়ে স্বপ্নের বীজ বোনা।

পদ্মাসেতু চালু হলে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার সঙ্গে শুধু সরাসরি সড়ক ও রেল যোগাযোগই স্থাপিত হবে না, ওই অঞ্চলের অর্থনীতি এবং সার্বিক উন্নয়নে আসবে নতুন গতি। নতুন রেল ও সড়ক নেটওয়ার্কে পায়রা বন্দরের সঙ্গে রাজধানীতে পন্য পরিবহনে এমন গতি সৃষ্টি হবে, যা ছিল কল্পনার অতিথ।

যাতায়াতেও আসবে আমূল পরিবর্তন। আগামী বছর শেষে পদ্মার বুকের উপর দিয়ে শুধু যানবাহন নয়, অপ্রতিরোধ্য গতিতে ছুটে চলবে কোটি মানুষের স্বপ্ন।

শতাব্দীকাল থেকেই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে মানুষের কাছে পদ্মা নদী যেন ছিল মূর্তিমান এক আতঙ্কের নাম। তাই এটা তাদের কাছে শুধুই সেতু নয়, যেন স্বপ্নের সৌধ।

কল্পনাকে হার মানিয়েই শুরু হবে স্বপ্নকে ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রতিযোগিতা। সময়কে উপেক্ষা করে, পদ্মাসেতুতে ভর করে দিয়ে ছুটবে কোটি মানুষের আবেগ। যা হয়ে উঠবে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার অন্যতম লাইফলাইন। সেই শুভক্ষণের প্রহর গুনছে গোটা বাঙ্গালি জাতি।

বুলবুল আহমেদ, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button