দেশবাংলা

হাজারো মানুষের স্বপ্ন একটি রাস্তা

গ্রাামের নাম দেওয়ালেরটেক। গাজীপুরের কালীগঞ্জ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের অবহেলিত একটি গ্রাম। এ গ্রামের মানুষ এখনো স্বপ্ন দেখেন মৃত্যুর আগে হয়তো এই গ্রামে প্রবেশের একটা ভাল রাস্তা দেখে যেতে পারবেন। কিন্তু সেই স্বপ্ন কি স্বপ্নই থাকবে? না কি বাস্তবে পরিণত হবে এমন শংকা নিয়েই দিনাতিপাত করছেন এখানকার বাসিন্দারা।

বর্ষা মৌসুম ছাড়া বছরের অন্যান্য সময় পায়ে হেঁটে চলাচলের জন্য একমাত্র একটি সরু রাস্তা রয়েছে। তবে বর্ষায় ওই রাস্তাটিও পানিতে তলিয়ে যায়। তখন দেওয়ালেরটেক গ্রামে যাতায়াতের একমাত্র বাহন নৌকা। বছরের পর বছর ধরে এ গ্রামের মানুষগুলো এমন ভোগান্তি নিয়েই অবহেলিত জনপদে বসবাস করছেন।

গ্রামটিতে প্রায় সহাস্রাধীক লোকের বসবাস। রয়েছে শতাধিক স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী। বর্ষা মৌসুমে গ্রাম থেকে বের হতে হলে একমাত্র চলাচলের বাহন থাকে নৌকা। সে সময় শিক্ষার্থীরা ঠিকমত পাঠগ্রহণ করতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারে না। কোন ব্যক্তি অসুস্থ্য হলে হাসপাতালে নেওয়াও হয়ে যায় কষ্টসাধ্য ব্যাপার। অনেক বয়স্ক মানুষ ওই রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে পড়ে গিয়ে ভেঙ্গেছেন হাত-পা।

কথা হয় ওই গ্রামের বাসিন্দা আলী হোসেন (৫০), তছর আলী (৫৫), ওমর ফারুক (৪২) ও রজব আলীর (৫৬) সঙ্গে। তারা জানান, এই রাস্তাটি দিয়ে বাঙ্গাল হাওলা, দেওয়ালেরটেক ও দুর্বাটি গ্রামের মানুষ চলাচল করেন। এখানে আছে দেওয়ালেরটেক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, আছে দেওয়ালেরটেক জামে মসজিদ। স্কুলের ছোট ছোট কমলমোতি শিশুরা চলাচলে যেমন সমস্যা হয়। তেমনি সমস্যা হয় মুসল্লিদের মসজিদে যাতায়াতেও। তবে দীর্ঘ ৩০ বছর একটিমাত্র রাস্তার জন্য তারা অপেক্ষা করে আছেন।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোফাজ্জল হোসেন আকন্দ মোমেন ও মহিলা কাউন্সিলর আমিরুন্নেসা বলেন, একটি রাস্তার অভাবে দেওয়ালেরটেক গ্রামের মানুষগুলো খুবই অসুবিধার মধ্যে রয়েছে।

কালীগঞ্জ পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. হুমায়ুন কবির বলেন, দুবার্টি থেকে মুনশুরপুর বাইপাস অভিমুখি রাস্তার দৈর্ঘ্য প্রায় দুই কিলোমিটার। গাজীপুর জেলা পরিষদ ও পৌরসভা মিলে ইতিমধ্য ওই রাস্তাটির প্রায় ১ কিলোমিটারের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। নতুন ফান্ড পাওয়ার পর বাকী কাজ সম্পন্ন হবে।

রফিক সরকার, কালীগঞ্জ প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button