দেশবাংলা

কুড়িগ্রামের রৌমারী জিঞ্জিরাম নদীর ওপর স্থায়ী ব্রিজ নির্মাণের দাবি

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা, চর লাঠিয়াল ডাঙ্গা গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া জিঞ্জিরাম নদী বেষ্টিত ১০টি গ্রাম।এ অঞ্চলের মানুষের নদী পারাপারের একমাত্র মাধ্যম বাঁশের সাঁকো। স্বাধীনতার পর থেকে একটি স্থায়ী ব্রীজের অভাবে, ১০ গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার মানুষ রয়েছেন চরম দূর্ভোগে। তাই নদীর ওপর একটি স্থায়ী ব্রিজ নির্মাণের দাবী,ভুক্তভোগীদের।

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকাটি বরাবরই অবহেলিত।স্বাধীনতার ৪৯ বছরেও তেমন কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি এ অঞ্চলে। যাদুরচর ইউনিয়নে রয়েছে,চুলিয়ারচর,আলগারচর,চর লাঠিয়াল ডাঙ্গা,বাগানবাড়ী,বালিয়ামারী ও নয়াপাড়া বিকরি-বিলসহ ১০টি গ্রাম। এ অঞ্চলের মানুষের জিঞ্জিরাম নদীর ওপর দিয়ে পারাপারের একমাত্র মাধ্যম বাঁশের সাকোঁ।

এদিকে, নদী পাড়ে রয়েছে,চর পাহাড়তলী হাট।প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছেন, এ অঞ্চলের মানুষ। প্রতিবছর গ্রামবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে নিজস্ব অর্থায়নে বাঁশের সাকোঁ নির্মাণ করে যাতায়াত করছেন। এছাড়াও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা নৌকায়,কলাগাছের ভেলাসহ নানা উপায়ে নদী পারাপার হয়।যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো না হওয়ায়,এখানকার কৃষকরা তাদের পণ্যের ন্যায্যমূল্য থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন।

জিঞ্জিরাম নদীর ওপর স্থায়ী ব্রিজ নির্মাণ হলে এ অঞ্চলের মানুষ কি ধরণের সুবিধা পাবেন সেদিকগুলো তুলে ধরেছেন,উপজেলা প্রকৌশলী।৫০ হাজার মানুষের দূর্ভোগ লাঘবে সংস্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দ্রুত ব্রিজ নির্মানে উদ্যোগী হবে, প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।

বাংলা টিভি/দেশবাংলা

 

 

 

 

 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button