দেশবাংলা

স্বচ্ছতা ফিরেছে বেনাপোল চেকপোষ্ট কাস্টমসে

যশোরের বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোষ্ট কাস্টমস ও আন্তজার্তিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল দিয়ে পাসপোর্ট যাত্রী গমনাগমনে স্বচ্ছতা ফিরে এসেছে। কাস্টমস ও যাত্রী টার্মিনালে বহিরাগতদের ভিড়ে যাত্রীরা নানা মুখি হয়রানির শিকার হতো। এ বিষয়গুলো মাথায় রেখে কাস্টমস ও বন্দর কর্তৃপক্ষ স্বচ্ছতা ফিরিয়ে আনতে কড়াকড়ি আরোপ করে বহিরাগত প্রবেশে নিশেধাজ্ঞা জারি করেছে।

বেনাপোল চেকপোষ্ট কাস্টমস সুত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে পাসপোার্ট যাত্রীদের নিয়ে কিছু বহিরাগতরা নানা মুখি হয়রানি করত। এরা সু- কৌশলে যাত্রীদের সাথে এসব করায় কাস্টমস বিভাগের দৃষ্টি গোচর হয়।

যার ফলে বন্দর কর্তপক্ষের সাথে আলাপ আলোচনা করে যৌথভাবে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, যাতে বহিরাগতরা প্রবেশ করে কোন যাত্রীকে হয়রানি করতে না পারে। সূত্রটি বলে এসব বহিরাগতরা এর আগে বেনাপোল প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল এর সামনে থেকে যাত্রীদের কাজ করে দেওয়ার নাম করে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। সে ব্যাপারে বেনাপোল ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষও যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি আহসান হাবিব বলেন, ভারতগামী যাত্রীদের নিকট থেকে একটি চক্র প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ায় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ তৎপর হয়। এরপর ওই চক্রদের আটক করা হয়। এবং যশোর জেলা হাজতে ছিনতাই প্রতারনার মামলা দিয়ে পাঠানো হয়।

বেনাপোল কাস্টমস সুপার শারমিন আক্তার বলেন, যাত্রীদের যাতে কোন হয়রানি না হয় তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখানে স্বচ্ছতার সাথে কাজ করে যাত্রী সেবা ও কাস্টমসের সুনাম অর্জন করতে হবে। এ জন্য বহিরাগত লোক প্রবেশে নিষেধ করা হয়েছে।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক মামুন কবির তরফদার বলেন, বেনাপোল আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল হয়ে ভারত গামী পাসপোর্ট যাত্রী কাস্টমস ইমিগ্রেশনে যায়। কিছু বহিরাগত লোকের প্রবেশ আমাদের দৃষ্টি গোচর হওয়ায় আমরা কড়াকড়ি আরোপ করেছি। কোন বহিরাগত লোক যাতে ভিতরে প্রবেশ করতে না পারে এবং যাত্রীদের সাথে প্রতারনা করতে না পারে তার জন্য কড়াকড়ি পদক্ষেপ গ্রহন করেছি।

যাত্রী সেবার জন্য কাস্টমস ও বন্দর কর্তৃপক্ষ যৌথ ভাবে আরো সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যে সকল বহিরাগত ভিজিটর ভিতরে প্রবেশ করবে তাদের বন্দরের গেট থেকে আইডি কার্ড ও রেজিস্টার স্বাক্ষর করে যেতে হবে। তবে ওই সকল ভিজিটর কারা, তারও যথাযথ পরিচয় থাকতে হবে

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button