দেশবাংলা

সিজারের সময় নবজাতকের পেট কেটে ফেলার অভিযোগ

অস্ত্রোপচারের (সিজার) সময় নবজাতকের পেট কেটে ফেলার অভিযোগ উঠেছে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার ‘ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টার’ ক্লিনিকের বিরুদ্ধে। ঘটনার পরদিন শনিবার সন্ধ্যায় শিশুটির মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে শিশুটির বাবা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

বাবার অভিযোগ, শুক্রবার সকালে তাঁর স্ত্রী রুমা খাতুনের প্রসব বেদনা ওঠে। পরে তাঁকে ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি করা হয়। দুপুরে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরিবর্তে ক্লিনিকের মালিক উপসহকারী মেডিক্যাল অফিসার নাজমুল হক রুমার অস্ত্রোপচার করেন। এ সময় নবজাতকের পেট কেটে নাড়িভুঁড়ি বের হয়ে যায়। এ অবস্থায় শিশুটিকে তাঁরা তিন ঘণ্টা গোপন কক্ষে রেখে দেন।

অনেক আকুতি-মিনতির পর নবজাতককে মায়ের কাছে দেওয়া হয়। রাতে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ শিশুটিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করে। সেখানে নেওয়া হলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা সাগরকে জানিয়ে দেন তাঁর সন্তানকে কোনোভাবেই বাঁচানো সম্ভব নয়। এ অবস্থায় শিশুটিকে নিয়ে বাড়িতে চলে আসেন তিনি। পরদিন শনিবার সন্ধ্যায় শিশুটির মৃত্যু হয়।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কনক কান্তি দাস গতকাল রবিবার সকালে ক্লিনিকটি পরিদর্শন করেছেন। এ ছাড়া শিশুটির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হাদী জিয়াউদ্দীন আহমেদ সাঈদ আগামীকাল মঙ্গলবার ক্লিনিকটি বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। তবে ক্লিনিকে রোগী ভর্তি থাকায় তিনি দুই দিনের সময় দিয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button