দেশবাংলা

মায়ের প্রতি ভালবাসার অনন্য নজির দেখালেন চিকিৎসক ছেলে

শয্যাশায়ী মায়ের ইচ্ছে পূরণ করতে, স্ট্রেচারে করে সারা গ্রাম ঘুরিয়ে, মায়ের প্রতি ভালবাসার অনন্য নজির সৃষ্টি করেছেন, হবিগঞ্জ শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের এক চিকিৎসক।

সম্প্রতি হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার গাজিপুরে তিনি তার মাকে, বাবার কবরসহ সারা গ্রাম ঘুরিয়ে দেখান। দীর্ঘ ৭ মাস বিছানায় থাকার পর, মুক্ত বাতাসে নিঃশ্বাস নিতে পেরে, অনেকটা আবেগাপ্লুত হয়ে যান ৮৮ বছর বয়সী মা। স্থানীয়রা বলছেন, মায়ের প্রতি এমন ভালবাসা অন্যদেরও অনুপ্রাণীত করবে।

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের গাজিপুর গ্রামের গরীবের ডাক্তার হিসেবে খ্যাত, মুখলেছুর রহমান। বাবা, সাবেক ইউপি সদস্য মকসুদ আলী মারা যান, ২০০১ সালে। মা জোবেদা খাতুন বার্ধক্যজনিত কারণে, দীর্ঘদিন থেকে শয্যাসায়ী। এরমধ্যে পড়ে গিয়ে ভেঙ্গে যায়, কোমড়ের হাড়। একারনে দীর্ঘ ৭ মাস ঘর থেকে বের হতে পারেননি তিনি।

জোবেদা খাতুন বাইরে গিয়ে স্বামীর কবর ও গ্রাম ঘুরে দেখতে ছটফট করছিলেন। আর মায়ের সেই ইচ্ছে পুরন করতে, বাইরে নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নেন, হবিগঞ্জ শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের চিকিৎসক ছেলে, মুখলেছুর রহমান। প্রাইভেট হাসপাতাল থেকে আনা, রোগীর স্ট্রেচারে করে মাকে নিয়ে বের হয়ে যান, নিজেই। বাবার কবরসহ, সারা গ্রাম ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে দেখান তার মাকে।

দীর্ঘদিন পর বাইরের মুক্ত পরিবেশে বের হতে পেরে, খুশিতে চোখ ভিজে যায় মায়ের। গর্ভধারিনী মায়ের প্রতি ছেলের এমন অকৃত্রিম ভালবাসার প্রকাশ দেখতে ভীড় জমান, নানা বয়সী মানুষ।

চিকিৎসক মুখলেছুর রহমান জানান, মায়ের ইচ্ছে পূরণ করতেই তার এ পদক্ষেপ। সকলেরই মা-বাবার প্রতি আন্তরিক ও দায়িত্বশীল হওয়া উচিত বলেও মনে করেন, মানবিক এই চিকিৎসক।

হামিদুর রহমান, মাধবপুর প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button