দেশবাংলা

রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তায় ভাসানচরে থানা চালু

রবিবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে নোয়াখালী জেলার হাতিয়ায় নবগঠিত ভাসানচরে থানা উদ্বোধন করেছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। হাতিয়া উপজেলার চর ঈশ্বর ইউনিয়নের ছয়টি মৌজা নিয়ে এই থানা গঠিত হয়েছে। এটি নোয়াখালীর দশম থানা।

এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ভাসানচরে রোহিঙ্গারা এসে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছে বিধায় আরও রোহিঙ্গা এখানে বসবাসে আগ্রহী হয়ে দলে দলে আসছে। তাদের নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করার জন্য থানা গঠন করা হয়েছে। সার্বিক নিরাপত্তা আরও জোরদার করতে থানার জনবল বৃদ্ধিসহ যা যা করা সরকার তা করবে।’

ভাসানচর আশ্রয়ন প্রকল্প-৩-এ বসবাসকারী মিয়ানমার থেকে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাসহ অন্যদের নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা নিশ্চিতের জন্য একজন পুলিশ পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা), দুই জন উপপরিদর্শক (এসআই), চার জন সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) ও ১৭ জন কনস্টেবলসহ মোট ২৪টি পদ নিয়ে ভাসানচর থানার কার্যক্রম আজ থেকে শুরু হলো।

মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় জেগে ওঠা একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপ ভাসানচর। এর দৈর্ঘ্য প্রায় ৯ কি.মি. ও প্রস্থ ৬ কি.মি.। আয়তন প্রায় ৬৫ বর্গ কি.মি.। হাতিয়া উপজেলা সদর থেকে প্রায় ২৫ কি.মি. পূর্বে ও চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলা থেকে ৫ কি.মি. পূর্বে অবস্থিত।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button