দেশবাংলা

পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্রের তোয়াক্কা না করেই গড়ে উঠেছে ইটভাটা

পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই,নিয়মনীতির কোনরকম  তোয়াক্কা না কোরে,মানিকগঞ্জের সিংগাইরে তিন ফসলি জমিতে ইটভাটা গড়ে তুলেছেন,স্থানীয় প্রভাবশালীরা।ভুক্তভোগিরা বলছেন,এ বিষয়ে প্রশাসনের কাছে বারবার ধর্ণ্যা দিয়েও মিলছেনা কোন প্রতিকার।

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলায় দিগন্ত জোড়া ফসলের মাঠ।নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে এসব ফসলি জমিতেই গড়ে উঠেছে শতাধিক ইটভাটা।আর এখান থেকে তোলা হচ্ছে,জমির উর্বর মাটি।ফলে, দিনদিন কৃষি জমিগুলো মরাখাল ও বিলে পরিণত হচ্ছে। মাটি কাটা বন্ধ না হলে,অচিরেই শেষ হয়ে যাবে,৩ ফসলি কৃষিজমি।জানান,ভুক্তভোগীরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে,ড্রাবল এ বি,মোল্লা,বি বি এল ও মতিনসহ বেশ কয়েকটি ভাটার কোন বৈধ কাগজ নেই। তারপরও বছরের পর বছর চলছে তাদের কার্যক্রম।এসব অনিয়মের বিষয়ে জানতে চাইলে,সিংগাইর ভাটা মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক অবৈধ ভাটা পরিচালনার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

অনুমোদহীন ভাটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান,উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা ও  জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক। কৃষি জমি বাঁচাতে, এসব অবৈধ ভাটার বিরুদ্ধে প্রশাসনকে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবী,স্থানীয় ভুক্তভোগীদের।

বাংলা টিভি/দেশবাংলা

 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button