দেশবাংলা

মেহেরপুরে কেমিক্যাল দিয়ে পাঁকানো হচ্ছে টমেটো

শাক সবজিতে প্রসিদ্ধ মেহেরপুরের গাংনীতে প্রকাশ্যেই কেমিক্যাল দিয়ে পাঁকানো হচ্ছে অপুষ্ট টমেটো। খেত থেকে তোলা অপুষ্ট টমোটো কেমিক্যালের প্রভাবে হয়ে যাচ্ছে লাল টুকটুকে। এতে আকৃষ্ট হয়ে বেশি দরে কিনছেন ক্রেতারা। হাট বাজারে যত্রযত্র এগুলো বিক্রি হলেও প্রশাসন কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

কেমিক্যাল মেশানো টমেটো খেয়ে ভোক্তারা নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন বলে জানান চিকিৎসকরা। তবে প্রশাসন বলছে, বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গাংনী উপজেলায় চলতি মৌসূমে ৭৫ হেক্টর জমিতে টমেটোর চাষ করা হয়। শীতকালীন সবজির মধ্যে টমেটোর প্রতি এক আলাদা আগ্রহ রয়েছে ভোক্তাদের। প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় বিশেষ করে যোগ হচ্ছে টমেটোর সালাদ। আর এ সুযোগ কাজে লাগাচ্ছে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী ও চাষী। টমেটো পুষ্ট হওয়ার আগেই খেত থেকে তোলা হচ্ছে।

আর কেমিক্যাল দিয়ে গায়ের রং তৈরী করা হচ্ছে প্রাকৃতিকভাবে পাঁকা টমেটোর মতই। রোদের মধ্যে টমেটো রেখে নির্দিষ্ট কেমিক্যাল স্প্রে করা হচ্ছে প্রতিদিন। তার পর খড়কুটা দিয়ে প্রায় দুই সপ্তাহ জাগ রাখার পর রং আসার পরই বিক্রি করা হচ্ছে হাট বাজারে।

ব্যবসায়িরা বলছেন, এমনিতে টমেটো জাগে দেয়ার আগে বিষাক্ত নয় সামান্য পরিমান কেমিক্যাল দেয়া হচ্ছে। বেশি একটি ক্ষতিকর নয়। আর চাষিরা বলছে, বাজারে টমেটোর চাহিদা থাকায় ব্যবসায়িরা টমেটো কিনে জাগ দিয়ে পাঁকিয়ে তা বাজারে বিক্রি করছেন।

টমেটো কিনতে আসা বামন্দি বাজারের তানভির জানান, অনেকেই টমেটোর রং দেখে পাঁকা মনে করে কিনে নিচ্ছেন বিষ মেশানো টমেটো। সব জায়গাতেই একই অবস্থা। তাই সচেতর ক্রেতারা কাঁচা টমেটো কিনতে আগ্রহী। সচেতন ক্রেতারা এগুলো এড়িয়ে গেলেও বেশিরভাগ মানুষ এগুলোর প্রতি ঝুঁকে পড়েছেন। ক্রেতাদের চাহিদার কারণে খুচরা বিক্রেতারও বিক্রি করছেন কেমিক্যাল মেশানো টমেটো। আবার সচেতন ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়িও কাঁচা টমেটো বিক্রি হচ্ছে।

গাংনী উপজেলা কৃষি অফিসার কেএম শাহাবুদ্দীন, গাংনী উপজেলায় বেশ কয়েকটি জাতের টমেটো উৎপাদিত হয়। ইতোমধ্যে বাজারে বিক্রি হচ্ছে নানা ধরণের টমেটো। কয়েকদিন যাবত টমেটোয় বিষ স্প্রে করা ও কেমিক্যাল দিয়ে টমেটো পাঁকানোর অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: এম রিয়াজুল আলম জানান, কেমিক্যাল দিয়ে পাকানো এ সবজি খেয়ে সাময়িক নানা অসুবিধার পাশাপাশি ক্যান্সারের মতো দুরারোগ্য ক্যান্সারও হতে পারে। একনই এর ব্যবস্থা না নিলে সাধারণ মানুষ জটিল ও কঠিন রোগে আক্রান্ত হতে পারে।

সুস্বাদু এই জনপ্রিয় সবজি টমেটোতে বিষ স্প্রে করা অত্যন্ত দুঃখজনক ও ক্ষতিকর। বিষয়টি খোজ নিয়ে দোষিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলেন গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরএম সেলিম শাহনেওয়াজ।

আকতারুজ্জামান, মেহেরপুর প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button