বিশ্ববাংলা

কার্গো সেবা চালু না হওয়ায় হতাশ সৌদি প্রবাসীরা

সৌদি আরব ও বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পুনরায় শুরু হলেও, এখনো কার্গো সেবা চালু না হওয়ায়, হতাশ সৌদি প্রবাসীরা। ফলে, দীর্ঘদিন ধরে দেশে ও প্রবাসে আটকে আছে প্রচুর মালামাল, এতে করে বড় ধরণের আর্থিক ক্ষতির  মুখে পড়েছেন কার্গো ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের কার্গো চার্জ বেশি হওয়ায়, ক্ষোভ জানিয়েছেন প্রবাসীরা।

কথা হচ্ছিলো জেদ্দার একজন কার্গো ব্যবসায়ীর সাথে,বলছিলেন, নির্দিষ্ট সময়ে বাংলাদেশে  মালামাল ডেলিভারি দিতে না পারায়,  ৮০ হাজার সৌদি রিয়েল ফেরত দিতে হচ্ছে। প্রায় ১ বছর ধরে কার্গো সেবা বন্ধ থাকায়, এসকল প্রতিষ্ঠানে আটকে আছে প্রবাসীদের বিপুল পরিমান মালামাল।

অন্যদিকে করোনার শুরুর দিকে দেশে পাঠানো ৭০ হাজার কেজি পণ্য দীর্ঘদিন ধরে,  সিলেট  বিমানবন্দরে আটকে আছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা। যার বেশিরভাগেরই মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। অন্যদিকে কার্গো বন্ধ থাকায় সেখানেও প্রচুর পরিমান পণ্যের মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে।

বিমান, কার্গো বহন না করায়  অন্যান্য এয়ারলাইন্সে কিছু মালামাল গেলেও, সেগুলোও সঠিক সময়ে  ছাড়ানো যাচ্ছে না বলে জানান, ব্যবসায়ীরা রমজানকে সামনে রেখে পরিবারের জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস পত্র দেয়ার ইচ্ছে থাকলেও, কার্গো সেবা বন্ধ থাকায় হতাশ প্রবাসীরা।

অন্যদিকে পাশের দেশ  ভারত পাকিস্থানের তুলনায় বাংলাদেশের কার্গো চার্জ বেশি হওয়ায় ক্ষোভ  জানানোর পাশাপাশি পুনরায় কার্গো সেবা চালু করার জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রবাসীরা

বাংলাদেশ সরকার যদি প্রবাসীদের  প্রিয়জনদের নিত্য প্রয়োজনীয় কিছু মালামাল পাঠাতে আলাদা কার্গো ফ্লাইট চালুসহ, প্রতিষ্ঠান গুলোকে  কার্গো ফি নির্ধারণ ও নির্ধারিত সময়ে মালামাল ডেলিভারি দেয়ার নির্দেশনা  দেন,তবে কার্গো নিয়ে বিড়ম্বনা অনেকটাই কমে আসবে বলে মনে করেন বহির্বিশ্বের কোটি  প্রবাসী।

সাইফুল রাজীব, জেদ্দা প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button