রাজনীতিবিএনপি

সমুচিত জবাব দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি বিএনপির

জিয়াউর রহমানের খেতাব কেড়ে নেয়া হলে, সমুচিত জবাব দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিএনপির নেতারা। বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে দলটির নেতারা অভিযোগ করেন, বর্তমান সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না। দ্রুত নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি জানায় বিএনপি।

এসময় রাজপথে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে সরকারের পতন ঘটিয়ে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হবে বলে জানান বিএনপি নেতারা। আব্দুস সালাম বলেন, ‘জিয়াউর রহমানে খেতাব কারও দয়ায় পাওয়া নয়। এটা তিনি অর্জন করেছেন। এ দেশের জনগণ তাকে এই খেতাব দিয়েছে। এটি কেড়ে নেওয়ার এখতিয়ার কারও নেই। সরকারকে আমি অনুরোধ করব, এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করবেন না, যাতে করে আগামী দিনে বিএনপির সঙ্গে আপনাদেরকেও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য মাঠে নামতে হয়।’

আমান উল্লাহ আমান বলেন, ‘এই সরকারের পায়ের নিচে মাটি নেই, এই সরকারের সঙ্গে জনগণ নেই। এ জন্যই জনগণকে ভয় পায়। এই সরকার বিচারবিভাগ ধ্বংস করে দিয়েছে, এই সরকার গণতন্ত্র ধ্বংস করে দিয়েছে। সরকার প্রধান থেকে শুরু করে, যারা মন্ত্রীপরিষদে রয়েছে, এমপি রয়েছে— তারা সবাই লুটপাট করছে।’

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘যে শাহজাহান খান আজ জিয়াউর রহমানের খেতাব কেড়ে নেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে, ক্ষমতার পটপরিবর্তন হলে, সেই শাহজহান খান কেবল খেতাব নয়, প্রধানমন্ত্রীর জীবনের জন্য হুমকিও হতে পারে। কারণ, ৭২-৭৫ আওয়ামী লীগের লোকজনদের খুঁজে খুঁজে মেরেছে এই শাহজাহান খান। কারণ, তিনি তো গণবাহিনীর নেতা।’

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দলটির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, আমান উল্লাহ আমান, সিনিয়র যুগ্ম রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা নাজিম উদ্দীন আলাল, অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, মোস্তাফিজুর রহমান, ফখরুল ইসলাম রবিন, নিপুণ রায় চৌধুরী প্রমুখ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button