দেশবাংলা

রংপুরে বেদখল হয়ে যাচ্ছে,বেগম রোকেয়ার পৈত্রিক সম্পত্তি

নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়ার স্মতিবিজড়িত রংপুরের পায়রাবন্দে, পৈত্রিক বাড়িটি পড়ে আছে অযত্ন অবহেলায়। তার জীবন ও কর্ম নিয়ে গবেষণায় চালু থাকা স্মৃতিকেন্দ্রে, নেই ন্যুনতম উপকরণ। ইতিহাস ঐতিহ্যের এসব স্থাপনা রক্ষণাবেক্ষণসহ, মহিয়সী এই নারীর স্মৃতি রক্ষায় নেই,কার্যকর কোনো উদ্যোগ। প্রায় সাড়ে তিনশো বিঘার পৈত্রিক সম্পত্তিও, এখন বেদখলের পথে।

উনবিংশ শতাব্দীর মহিয়সী নারী,শিক্ষাবিদ ও সমাজ সংস্কারক,বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন। তার জন্ম,রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবন্দ গ্রামে।১৯৩২ সালে কলকাতায় মৃত্যুর পর, সেখানেই তাঁকে সমাহিত করা হয়।

রংপুরের পায়রাবন্দে বেগম রোকেয়ার স্মৃতিচিহ্ন বলতে রয়েছে,কেবল পৈত্রিক বাড়ির ধ্বংসাবশেষ, আর মূল ফটকসহ মামলা জটিলতায়,প্রায় সাড়ে তিনশো বিঘার পৈত্রিক সম্পত্তি। সেটাও এখন বেদখলের পথে। মহিয়সী এই নারীর স্মৃতি রক্ষায়, কার্যকর উদ্যোগ নেয়ার দাবী, স্থানীয়দের।

স্মৃতি কেন্দ্রে শুধু সঙ্গীত শেখার আসর,অংকন ও পাঠাগার ছাড়া, আর কোন কার্যক্রম এখনো শুরু হয়নি। বেগম রোকেয়ার স্মৃতি ধরে রাখতে, সরকারের সু-দৃষ্টি চেয়েছেন,বেগম রোকেয়া স্মৃতি কেন্দ্রের কর্মকর্তা-

বেগম রোকেয়া ছিলেন,সমাজ সচেতন ও যুক্তিবাদী। অন্যদিকে সমাজ পরিবর্তনে একনিষ্ঠ সংগঠক হিসেবে ছিলেন, উজ্জ্বল পথিকৃৎ। তাই স্মৃতি কেন্দ্রটিকে, পুর্ণাঙ্গভাবে চালু করাসহ তার স্মৃতি রক্ষায়, সরকার বিশেষ সুনজর চেয়েছেন,রংপুরবাসী।

বাংলাটিভি/দেশবাংলা

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button