দেশবাংলা

গোপালগঞ্জে ভাসমান বেডে হচ্ছে তরমুজ চাষ

বর্ষাকালে তরমুজ চাষ করে রীতিমত অবাক করে দিয়েছে, গোপালগঞ্জের নকড়িরচর গ্রামের এক কৃষক। ধাপের ওপর গাছে গাছে ঝুলছে তরমুজ। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহযোগীতায়, এবারই তিনি ভাসমান বেডে তরমুজ চাষে সফলতা পেয়েছেন। অন্যরাও এই চাষে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

তরমুজ চাষ হয় মুলত গ্রীষ্মকালে। কিন্তু বর্ষা মৌসুমে তরমুজ চাষ করে সফল হয়েছেন গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার রঘুনাতপুর ইউনিয়নের নকড়ির চর গ্রামের হানিফ মল্লিক। প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে, তিনি বর্ণি বাওড়ে কচুরিপানা দিয়ে ভাসমান ধাপ তৈরী করে, সবজির চাষ করতেন।

এবছর গোপালগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরামর্শে, ৪টি বেডে সবজির পরিবর্তে, থাইল্যান্ডের ব্লাক সুইট-২ জাতের তরমুজ চাষ করেছেন।এতে, তার খরচ হয়েছে, ৭ হাজার টাকা। এসব গাছে মাত্র ৫০ দিনে ৩ শতাধিক ফল ধরেছে। অসময়ে উৎপাদিত তরমুজের চাহিদাও বেশি। তাই লাভবান হওয়ার আশা করছেন তিনি।

তার এই সফলতা দেখে  অন্য কৃষকরাও তরমুজ চাষে উৎসাহিত হয়েছেন।হানিফ মল্লিকের মত অন্য কৃষকরাও এই ফল আবাদে উৎসাহিত হবেন বলে জানান,কৃষি কর্মকর্তা।আগামীতে গোপালগঞ্জে ভাসমান পদ্ধতিতে তরমুজ চাষ বৃদ্ধি পাবে বলছে কৃষি বিভাগ।

বাংলাটিভি/ শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button