অন্যান্যজনদুর্ভোগদেশবাংলাবাংলাদেশ

গুলিস্তানে হকারদের বিক্ষোভ, তীব্র যানজট

শুধু শুক্রবারে হকাররা মার্কেটে বসতে চায়না, প্রতিদিনই তারা ফুটপাতে বসতে চায়। এমন দাবি নিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি)দেয়া নির্দেশনার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন হকাররা। মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে গুলিস্তানের গোলাপ শাহ মাজার এলাকায় একত্রিত হয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন তারা।এতে গুলিস্থানসহ আশপাশের সড়কে তৈরি হয় তীব্র যানজট।

সকাল থেকে হকারদের অবস্থানের কারণে স্থবির হয়ে পড়েছে গুলিস্তান ও  এর আশেপাশের এলাকা। পণ্টন- সচিবালয় মোড় থেকে গোলাপশাহ মাজার পর্যন্ত এলাকায় আটকা পড়েছে শত শত যানবাহন। চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ওই এলাকায় অবস্থান নিয়েছে পুলিশ।

এদিকে প্রথম রোজায় রাজধানীর ব্যস্ততম এই সড়ক অবরোধ করায় তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। রাজধানীর সদরঘাট, গুলিস্তান, মতিঝিল, পল্টন হয়ে শাহবাগ পর্যন্ত যানজটে স্থবির হয়ে পড়ে সব যানবাহন। এতে ভোগান্তিতে পড়েন অসংখ্য সাধারণ মানুষ।

বিক্ষোভকারীরা জানান, কিছুদিন আগে ট্রাফিক সপ্তাহের নামে আমাদেরকে ফুটপাত থেকে তুলে দেয় পুলিশ। তখন বলেছিল ট্রাফিক সপ্তাহ শেষ হলে আবার বসতে দিবে। কিন্তু এখন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে আমরা শুধু সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার হলি ডে মার্কেট খুলে বসতে পারবো।

ডিএমপির (ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ)মতিঝিল ট্রাফিক জোনের সহকারি কমিশনার (এসি) এসএম বজলুর রশিদ বলেন, হকারদের যদি কোনো দাবি থাকে তাহলে সেটি তারা ডিএমপি অথবা সিটি করপোরেশন বরাবর জানাতে পারে। এভাবে রোজার মাসে রাস্তা বন্ধ করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

উল্লেখ্য গত ৩০ এপ্রিল রাজধানীতে ১১টি হলিডে মার্কেট বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। পবিত্র রমজান মাস ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে সাপ্তাহিক সরকারি ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এসব মার্কেট চালু থাকবে। ঈদুল ফিতরের পর এসব মার্কেট বন্ধ করে দেয়া হবে।

বাংলাটিভি/ফাতেমা

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close