দেশবাংলা

প্রতিবন্ধী আর প্রতিবন্ধকতা নয়

লালমনিরহাটের শারিরীক প্রতিবন্ধী উদয় চন্দ্র, অজো পাড়া গাঁ হাজীগঞ্জ ভাতিটারীতে গড়ে তুলেছেন, গানের স্কুল। এদিকে, ঠাকুরগাঁওয়ের প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্থানীয় যুবকরা অসহায় ও দরিদ্র প্রতিবন্ধীদের নিয়ে গড়ে তুলেছেন, বগলাডাঙ্গী হাট প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়।

আর পিরোজপুরে ষাটোর্ধ্ব আব্দুল লতিফ খসরু সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য নিজ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা করেছেন একটি পাঠশালা।

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার উনিশ বছরের শারিরীক প্রতিবন্ধী যুবক উদয় চন্দ্র্র রায়। প্রতিবন্ধী হয়েও নেমেছেন সমাজের কল্যাণে। মায়ের আঁচল নামে একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং উপজেলার হাজীগঞ্জ ভাতিটারীতে গড়ে তুলেছেন, একটি গানের স্কুল।

শেখানো হয় লোকসংগীত ভাওয়াইয়াসহ শুদ্ধ সংস্কৃতি। প্রশিক্ষণ দেয়া হয়, দোতারা, একতারা, বাঁশি, হারমোনিয়ামসহ বিভিন্ন যন্ত্রসংগীত। অসহায় মানুষকে সহযোগিতার পাশাপাশি প্রতিবন্ধীদের ভাতা পেতেও সহায়তা করছেন তিনি।

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার ৭ নম্বর রাতোর ইউনিয়নের প্রত্যন্ত একটি গ্রামে নিভৃতে আলো ছড়াচ্ছে বগলাডাঙ্গী হাট প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়। ২০১০ সালে স্থানীয় কিছু যুবক ছোট একটি টিন শেড ঘরে দরিদ্র ও প্রতিবন্ধী ১৩০ জন শিশুকে নিয়ে গড়ে তোলেন এ বিদ্যালয়। নতুন বছরের বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত হলেও, নানা সংকটে জর্জরিত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্ত করাসহ কোমলমতি শিশুদের বিভিন্ন সহযোগিতার জন্য সরকারী সহায়তা চান, ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুল কাদের। এদিকে, প্রতিবন্ধী শিশুদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেয়ার আশ্বাস দেন, উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার বেলাল হোসেন।

পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার ষাটোর্ধ্ব আব্দুল লতিফ খসরু নিজ উদ্যোগে, সন্ধ্যা নদীর পাড়ে আমড়াঝুড়ি আবাসন কেন্দ্রে, প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি পাঠশালার পাশাপাশি গড়ে তুলেছেন ইতিহাসের একটি সংগ্রহশালা। সেখানে দেখা মেলে অনেক দুর্লভ তথ্য-চিত্রের।

লতিফ খসরুর মত সমাজের অন্যদেরও এগিয়ে আসার আহবান জানান, জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন।

প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য, ডেস্ক রিপোর্ট, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button