দেশবাংলা

টায়ার পুড়িয়ে জ্বালানি তেল : বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে বিষ

গাড়ীর পরিত্যক্ত টায়ার পুড়িয়ে জ্বালানি তেল তৈরি বিশ্বব্যাপী বিরল হলেও বাংলাদেশ ব্যতিক্রম। গাজীপুরের কালীগঞ্জে এ ধরণের তিনটি কারখানায় রাবারের টায়ার থেকে তেল উৎপাদন করা হয়। এসব কারখানার কোনটাই বৈধ নয়। উৎপাদন প্রক্রিয়াও সেই মান্ধাত্তা আমলের।

এই উৎপাদন প্রক্রিয়া থেকে বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে কার্বনমনো-অক্সাইড, নাইট্রোজেন, মিথেনসহ ১৬ ধরণের ক্ষতিকারক গ্যাস। ফলে, হুমকির মুখে পড়েছে পরিবেশ। উপজেলা প্রশাসন একাধিকবার জেল-জরিমানা করলেও, অজ্ঞাত শক্তিতে চলছে কারখানাগুলো।

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার তুমলিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণসোম এলাকায় ইউরিনকো বাংলাদেশ ও নাগরী ইউনিয়নের কেটুন এলাকায়, গ্লান এনার্জি ও এক্সট্রিম পাইরোলাইসিস ফুয়েল ইন্ডাঃ লিঃ নামে তিনটি কারখানা অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠেছে।

স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে, প্রশাসনের একাধিকবার জেল জরিমানার পরও চলছে, কারখানাগুলো। এসব কারখানায় কাঠ, টায়ার ও ময়লা-আবর্জনা পোড়ানোর কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে, সৃষ্টি হচ্ছে  দুর্গন্ধ। ধোঁয়া ও দূর্গন্ধে বায়ূ দূষনের ফলে, অযোগ্য হয়ে পড়ছে মানুষের বসবাস।

টায়ার পোড়ানোয়, শ্বাস কষ্ট ও চোখ জ্বালাপোড়ার পাশাপশি মরে যাচ্ছে গাছপালা ও গবাদী পশু, কমছে ফলন। তবে, জেলা প্রশাসকের সহায়তা পেলে এসব বন্ধ করে দেয়ার কথা বললেন, জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো.আশরাফ উদ্দিন।

ইতোমধ্যে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাদের কয়েকবার আইনের আওতায় আনা হয়েছে এবং আবারো তাদের নোটিশ দেয়া হয়েছে বলে জানান, জেলার জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম।

পরিবেশের জন্য হুমকি এসব কারখানা থেকে কিছু মানুষ লাভবান হলেও, ভবিষ্যতে স্বাস্থ্য ঝুঁকির মাত্রা বাড়বে বহুগুন। তাই স্থানীয়দের দাবি উন্নত বিশ্বের সঙ্গে মিল রেখে গড়ে উঠুক,এখানকার টায়ার রিসাইকেলিং গ্রীন ওয়েল কারখানাগুলো।

 রফিক সরকার, কালিগঞ্জ প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button