টলিউডবিনোদনহলিউড

করোনায় মারা গেলেন যেসব তারকারা

বিশ্বজুড়ে বেড়েই চলেছে মৃতের সংখ্যা। এই তালিকায় রয়েছেন বেশ কিছু তারকারাও। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন রক অ্যান্ড রোল খ্যাত সংগীতশিল্পী অ্যালান মেরিল। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর। জনপ্রিয় গান ‘আই লাভ রক অ্যান্ড রোল’এর গীতিকার অ্যালান মেরিল। করোনায় মারা গেছেন আরেক গ্র্যামিজয়ী সংগীতশিল্পী জো ডিফি। ৬১ বছর বয়সে মারা গেলেন তিনি।

বাংলাদেশের অনেক মানুষের কাছে তিনি পরিচিত ‘কাইশ্যা’ নামে। তিনি হচ্ছেন জাপানের জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা কেন শিমুরা। তিনিও মারা গেছেন। তিনি ১৯৭০ সালের দিকে অভিনয়জগতে প্রবেশ করেন। বিশ্বজুড়েই কমেডিয়ান হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয় শিমুরা।

বাংলাদেশে ‘পাগলা ডিরেক্টর’ নামের একটি অপেশাদার অনলাইনভিত্তিক গ্রুপ শিমুরা অভিনীত বিভিন্ন ধারাবাহিক ডাবিং করে ফেসবুক এবং ইউটিউবে প্রচার করে বিশেষ করে বাংলায় ডাবিং করা ‘জীবনটা বেদনা, কিছু ভালো লাগেনা’ সংলাপটি দারুণ জনপ্রিয় হয়েছিল।

ইডি লার্জ একজন ব্রিটিশ কমেডিয়ান। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৭৮ বছর বয়সে মারা যান তিনি। হার্টের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। তাঁর এজেন্ট ও ছেলে রায়ান জানিয়েছেন, হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে তাঁর মৃত্যু হয়। ইডি লার্জের আসল নাম এডওয়ার্ড ম্যাকগিনিস। ১৯৭৮ থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন বিবিসি ওয়ানের জনপ্রিয় মুখ।

অন্য ব্রিটিশ কমেডিয়ান টিম ব্রুক টেইলর ৭৯ বছর বয়সে মারা যান। টিমকে স্মরণ করে ব্রিটিশ কমেডিয়ান উইলিয়ামস লেখেন, ‘দ্য গুডিস দেখে আমি হাসতে শিখেছিলাম, জীবনের লক্ষ্য ঠিক করেছিলাম কমেডিয়ান হবার। টিম ব্রুক টেইলর মানেই খুশি। তিনি একই সঙ্গে অত্যন্ত জ্ঞানী আর দয়ালু ছিলেন। তাঁর চলে যাওয়া মেনে নেওয়া কঠিন।’ দ্যা গার্ডিয়ান

অভিনেতা অ্যান্ড্রু জ্যাকের বিখ্যাত মুভিগুলো হচ্ছে ‘স্টার ওয়ারস: দ্য লাস্ট জেডি’, ‘সোলো: এ স্টার ওয়ারস স্টোরি’ ও ‘স্টার ওয়ারস: দ্যা ফোর্স অ্যাওকেনস’ ।– ওয়াশিংটনপোস্ট ও বিবিসি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close