আন্তর্জাতিকএশিয়া

লাদাখে শক্তিশালী ট্যাঙ্ক মোতায়েন ভারতের, বাঙ্কার বানাচ্ছে চীন

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদন বলছে, সীমান্তে যুদ্ধের আওয়াজ শুরু হয়ে গেছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় চীন যেখানে বাঙ্কার বানাচ্ছে, ভারত সেখানে ৯০ ভীষ্ম ট্যাঙ্ক মোতায়েন করছে। ওই ট্যাঙ্কের শক্তি বিশ্বের অন্যান্য সকল ট্যাঙ্কের চেয়ে বেশি।

এদিকে পশ্চিম হিমালয় অঞ্চলে ভারতের সঙ্গে সীমান্ত সংঘাতের ঘটনাস্থলের কাছেই চীন নতুন অবকাঠামো তৈরি করেছে, যা স্যাটেলাইটের ছবিতে ভেসে উঠেছে। এদিকে, দু’দেশের সীমান্ত সংঘাত নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

লাদাখে সংঘাতের পর থেমে নেই চীন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়, পূর্ব লাদাখের ডেপসং দখল করার জন্য চীনা বাহিনী এগিয়ে আসছে। পাল্টা জবাব ভারতেরও। প্রতিবেশি দেশটিকে মোক্ষম জবাব দিতে বিশ্বের সবচে শক্তিধর ট্যাঙ্কের ব্যবহার শুরু করেছে তারা।

বায়োলজিক্যাল ও কেমিক্যাল অস্ত্র বহন করতে পারে রাশিয়ায় তৈরিকৃত এই ট্যাঙ্ক। মিনিটে আটটি শেল নিক্ষেপ করতে পারে, মাত্র ৪৮ টনের এই ট্যাঙ্ক মিসাইল যুদ্ধে অত্যন্ত কার্যকরী। এতে করে ভারতীয় সেনাবাহিনী আরো শক্তিশালী হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এক হাজার হর্স পাওয়ার ইঞ্জিনের এই ট্যাঙ্কের গতি ঘণ্টায় ৭২কিলোমিটার। একবারে ৫৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে পারে ভীষ্ম।

অন্যদিকে, পশ্চিম হিমালয় অঞ্চলে ভারতের সঙ্গে সীমান্ত সংঘাতের ঘটনাস্থলের কাছেই চীন নতুন অবকাঠামো তৈরি করেছে, যা স্যাটেলাইটের ছবিতে দৃশ্যমান। রয়টার্সের খবরে জানানো হয়, বিষয়টি পারমাণবিক শক্তিধর দুই রাস্ট্রের মধ্যে উত্তেজনা বাড়িয়ে দিয়েছে।  চীনের মন্ত্রণালয় এবং ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ও এ বিষয়ে মুখ খোলেনি।

দুই প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে যখন ভারতের সীমান্ত নিয়ে টানাপোড়েন চলছে তখন মাথাচাড়া দিচ্ছে আরেক প্রতিবেশী দেশ ভুটান। ভারতীয় কৃষকদের চাষের পানি দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির সরকার। এই বিষয়ে কোনো কিছু জানায় নি থিম্পু।

এছাড়া, ভারত-চীন সীমান্ত সংঘাত নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। গত প্রায় একমাস ধরে চলা এই সীমান্ত উত্তেজনার বিষয়ে, জারভেটিভ পার্টির সাংসদ ফ্লিক ড্রুমন্ডের এক প্রশ্নের জবাবে  এই প্রথম সরকারি বিবৃতি দিলেন তিনি। আলোচনার টেবিলে বসে দু’দেশের সমস্যা সমাধানের পরামর্শ, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close