বিশ্ববাংলা

ব্রুনাইয়ে মানবপাচার: মূলহোতা বিজন পলাতক

ব্রুনাই প্রবাসী মেহেদী হাসান বিজন প্রবাসীদের সাথে প্রতারণা করে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন, প্রতারিত প্রবাসীদের অভিযোগ পেয়ে, তাকে খুজছে পুলিশ।

জানা যায়, গত ৩ জানুয়ারি ব্রুনাইয়ে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মেহেদী হাসান বিজনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি প্রতিবেদন পাঠান। বিজন বাংলাদেশের কয়েকটি রিক্রুটিং এজেঞ্জির সহায়তায় কাজ দেয়ার নাম করে একেকজন প্রবাসীর কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেন।

ব্রুনাইয়ে তার মালিকানায় নামসর্বস্ব ১৫ টি কোম্পানী রয়েছে। এগুলোর বাস্তবে কোনো অস্তিত্ব নেই। এসব কোম্পানীতে চাকরী দেয়ার কথা বলে প্রবাসীদেরকে বৈধ ভিসায় ব্রুনাই নিয়ে যাওয়া হতো। তারপর তাদেরকে সেখানে নিয়ে ছেড়ে দেয়া হতো। ফলে তারা বিপদে পড়তেন। প্রতিবাদ করলে অত্যাচার করা হতো।

এক প্রবাসী জানায়, তার আঙুল কেটে দিয়েছে বিজনচক্র। পরে, প্রবাসীদের অভিযোগের ভিত্তিতে ব্রুনাই সরকার তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠালেও, করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাব শুরুর পর তাকে দেশে পাঠিয়ে দেয়া হয়।

বাংলাদেশেও প্রতারিত অনেকেই তার নামে মামলা দায়ের করেছেন। প্রবাসীদের অভিযোগের ভিত্তিতে বিজনের ৩ জন সহযোগীকে গ্রেফতার করা সম্ভব হলেও বর্তমানে ঢাকায়  গা ঢাকা দিয়ে আছে বিজন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button